পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরের সিয়াচেন হিমবাহে তুষার ধসে দেশটির ৫ সেনা নিখোঁজ হয়েছে। উদ্ধার অভিযানের জন্য ভারি যন্ত্রপাতি পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে পাক সেনাবাহিনী।

এ ছাড়া, চলমান উদ্ধার তৎপরতায় স্থানীয়দের সহায়তা নেয়ার কথাও জানানো হয়েছে। অবশ্য এখনো হতাহতের কোনো বিবরণ প্রকাশ করেনি পাক সেনাবাহিনী।

সিয়াচেন হিমবাহ হিমালয়ের পূর্ব কারাকোরাম পর্বতমালায় অবস্থিত। ভারত-পাকিস্তান নিয়ন্ত্রণ রেখার ঠিক পূর্বদিকে এটি অবস্থিত। ২১,০০০ ফুট উঁচুতে অবস্থিত হিমবাহতেই রয়েছে পৃথিবীর উচ্চতম যুদ্ধক্ষেত্র।

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে ভারতের ১০ সেনা তুষার ধসে চাপা পড়েছিল। এ ছাড়া, গত বছরের জানুয়ারিতে তুষার ধসে চাপা পড়ে চার ভারতীয় সেনা নিহত হয়েছিল।

শীতকালে সিয়াচেনে তুষার ধস নামাটা স্বাভাবিক প্রাকৃতিক বিষয়। সে সময়ে সিয়াচেনের তাপমাত্রা কখনো কখনো সেলসিয়াসের হিসাবে শূন্যের ৬০ ডিগ্রি নিচে নেমে যায়।

১৯৮৪ সাল থেকে সিয়াচেনে প্রায় ৮ হাজার সেনা নিহত হয়েছে। যুদ্ধ নয় বরং তুষার ধরে চাপা পড়ে, ঠাণ্ডায় জমে, উচ্চতা থেকে সৃষ্ট নানা রোগ-ব্যাধি এবং হৃদযন্ত্র বন্ধ হয়ে মারা গেছে এ সব সেনা।

২০১২ সালে ভয়াবহ তুষার ধসে পাকিস্তানের ১২৪ সেনাসহ ১৩৫জন নিহত হয়েছিল। গাইয়ারি সেক্টরে এ ভয়াবহ তুষার ধস আঘাত হেনেছিল।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here