কমবেশি আমরা অনেকেই চুল সেট করার জন্য বাসায় হেয়ার স্প্রে ব্যবহার করে থাকি। হেয়ার স্টাইলিংয়ের জন্য ব্যবহৃত হেয়ার স্প্রে দিয়ে শুধু চুল সাজানোই নয় আরও অনেক দৈনন্দিন কাজে ব্যবহার করা যায়। এই বিউটি প্রোডাক্টটির রয়েছে নানান গুণ।

তবে আসুন জেনে নিই চুলের স্প্রে আর কি কি কাজে ব্যবহার করা যায়—

জুতার পলিশ: প্রতিদিন ব্যবহারের কারণে উজ্জ্বলতা হারায় আপনার জুতা। কিন্তু কাজের চাপের কারণে পালিশ করার সময় হয়ে উঠছে না। তাই সময় বাঁচানোর জন্য জুতো পালিশ করে সাথে সাথে এর উপর হেয়ার স্প্রে করে দিন। এতে পালিশের রঙ দীর্ঘস্থায়ী হবে, সঙ্গে চকচকে ভাবটাও থাকবে।

পোকামাকড় থেকে বাঁচতে: মশা, মাছি, তেলাপোকা কিংবা ছোটোখাটো পোকামাকড় তাড়াতে হেয়ার স্প্রে ব্যবহার করুন। ঘরে পোকামাকড় দমনের স্প্রে শেষ হয়ে গেলে এটা পোকা দমনের স্প্রের মতোই কাজ করবে এবং তুলনামূলক কম ক্ষতিকর হবে।

ফুল তাজা রাখতে: যেকোনো বিশেষ কারণে বাড়িতে কাঁচা ফুল কিনে আনলেন অল্প কিছুদিনের মধ্যে ফুলগুলো নেতিয়ে পরে। তাই বেশি সময়ের জন্য ফুলগুলোকে তাজা রাখতে ফুলগুলো উল্টে ধরুন। ফুল নিচের দিকে এবং ডাল উপরের দিকে রেখে হেয়ার স্প্রে করুন এবং শুকাতে দিন। দেখবেন অনেকদিন পর্যন্ত অক্ষত অবস্থায় থাকবে ফুলগুলো।

নেইলপলিশ দীর্ঘস্থায়ী করতে: নেইলপালিশ লাগালেন কিন্তু কিছুদিনের মধ্যেই উঠে গেলো? দুঃশ্চিন্তা দূর করুন। কারণ নেইলপালিশের রঙ দীর্ঘস্থায়ী করতে আপনাকে সাহায্য করবে হেয়ার স্প্রে। নেইলপালিশ লাগিয়ে নখের উপর হেয়ার স্প্রে করে নিন। এতে আপনার নেইলপালিশ দীর্ঘস্থায়ী হবে।

এয়ার ফ্রেশনার: বাড়িতে মেহমান আসবে কিন্তু হঠাৎ করে এয়ার ফ্রেশনার শেষ হয়ে গেল। প্রয়োজনের সময় দরকার হলে হেয়ার স্প্রে হিসেবে এয়ার ফ্রেশনার ব্যবহার করতে পারবেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here