পিএসজির ব্রাজিল সুপারস্টার নেইমারের বিরুদ্ধে এবার ‘বাজে আচরণের’ অভিযোগ তুলেছে প্রতিপক্ষ দল রেনের খেলোয়াড়েরা। মঙ্গলবার রাতে রেনের মাঠে পিএসজির ৩-২ গোলের জয়ের ম্যাচটিতেই নেইমারের বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি ঘটনা ঘটানোর অভিযোগ করে প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়েরা। তবে এতে সমস্যার কিছু দেখছেন না পিএসজি কোচ উনাই এমেরি। তিনি নেইমারের মত খেলোয়াড়দের মাঠে আরও সুরক্ষা দাবি করেছেন।

ফরাসি লিগ কাপের সেমি-ফাইনালে প্রথমবার নেইমার তার পিছন দিয়ে বল থামিয়ে ঘুরে বেজামার মাথার উপর দিয়ে ফ্লিক করেন। তাতে ক্ষুব্ধ হয়ে বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফুটবলারকে আঁকড়ে ধরার চেষ্টা করেন ফরাসি এই উইঙ্গার। এমন আচরণের কারণে প্রতিপক্ষ শিবিরে ‘অহংকারী’ হিসেবেই পরিচিত হয়েছেন নেইমার।

এরপর যোগ করা সময়ের চার মিনিট আগে মাঠে পড়ে যান রেনের ডিফেন্ডার থাওহে। তার দিকে হাত বাড়ান নেইমার। কিন্তু থাওহে যখনই হাত বাড়ালেন তখন নিজের হাত সরিয়ে নেন পিএসজির এই খেলোয়াড়। রাগে-ক্ষোভে নেইমারকে ঘিরে ধরে রেনের খেলোয়াড়রা।

এসব অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে পিএসজি কোচ উনাই এমেরি বলেছেন, ‘নেইমার ওভাবেই খেলে আর সে বড় মাপের একজন খেলোয়াড়। দলের জন্য সে যা কিছু করতে পারে সেজন্য মাঠে তার নিজেকে উপভোগ করার দরকার আছে। তাকে অবশ্যই সুরক্ষা দিতে হবে। কেবল তাকে নয়, প্রতিটা খেলোয়াড়কেই সুরক্ষা দিতে হবে।’

ফাইনালে ওঠার এই ম্যাচে নেইমার কোনো কার্ড না দেখলেও ৬৪তম মিনিটে মারাত্মক ফাউল করে লাল কার্ড দেখেন কিলিয়ান এমবাপে। ১০ জনের দল নিয়েই বাকী সময় খেলতে হয় পিএসজিকে। এ বিষয়ে উনাই এমেরি বলেন, ‘প্রতিপক্ষকে ফাউল করায় কিলিয়ানকে লাল কার্ড দেখানো হয়– প্রত্যেক খেলোয়াড়কেই যে সুরক্ষা দেওয়া দরকার এই ঘটনা আমার যুক্তিকে আরও প্রতিষ্ঠিত করে।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here