যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন ২ দিনের সফরে ৯ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় আসছেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। এর আগে ২০০৮ সালে যুক্তরাজ্যের তৎকালীন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডেভিড মিলিব্যান্ড ঢাকা সফর করেন।

এ সফরে রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি যুক্তরাজ্যে কার্গো অবরোধ তুলে নেয়ার বিষয়টির চূড়ান্ত ঘোষণা আসতে পারে বলে ধারণা করছেন কূটনীতিকরা। এছাড়া ব্রেক্সিট ও ভিসা বিষয়টি নিয়েও গুরুত্বের সঙ্গে আলোচনা করা হবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলীর সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক ছাড়াও বরিস জনসন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন।

সূত্র জানায়, রোহিঙ্গা ইস্যুতে যুক্তরাজ্য বাংলাদেশের পাশে আছে। তারা জোরালো ভূমিকাও রেখেছে।

এ প্রসঙ্গে এক সরকারি কর্মকর্তা বলেন, ২৫ আগস্ট রাখাইনে নতুন করে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন শুরু হওয়ার ৫ দিনের মধ্যে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে রাখাইন নিয়ে আলোচনার আহ্বান করলে যুক্তরাজ্য ব্যাপক আগ্রহ দেখায়।

বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্যের মধ্যে অভিবাসন সংক্রান্ত কোনো জটিলতা না থাকলেও বাংলাদেশিদের ভিসা পাওয়ার ক্ষেত্রে যে সমস্যা হচ্ছে, সেটি এ সফরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জনসনকে জানানো হবে।

এ প্রসঙ্গে এক সরকারি কর্মকর্তা বলেন, বর্তমানে ভিসা দেয়ার হার কম। তারা অনেক সময় নিচ্ছে। আমাদের পক্ষ থেকে বলা হবে, আমাদের ছাত্ররা যেন অবাধে যুক্তরাজ্যে পড়তে যেতে পারে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here