অনাস্থা ভোটের আগেই সরে দাঁড়ালেন সাউথ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমা। স্থানীয় সময় বুধবার রাতে জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে পদত্যাগের ঘোষণা দেন তিনি। দলের মধ্যে কোন্দল ও অস্থিতিশীলতা বাড়তে থাকায় এই সিদ্ধান্ত, জানান ৭৫ বছর বয়সী জুমা। প্রেসিডেন্ট পদত্যাগ করায় দায়িত্বে আসতে পারেন ডেপুটি প্রেসিডেন্ট সাইরিল রামাফোসা।

ক্রমাগত রাজনৈতিক চাপে, অবশেষে পদ ছাড়লেন সাউথ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট। জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে জ্যাকব জুমার দাবি, ভুল করেননি; বরং অন্যায় আচরণ করেছে তারই দল এএনসি।

সাউথ আফ্রিকার বিদায়ী প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমা জানান, দলের স্বার্থেই পদত্যাগ কিন্তু দলীয় সিদ্ধান্তের সঙ্গে একমত নই। বরাবরই দলের প্রতি আনুগত্য দেখিয়েছি। পদ ছাড়লেও দেশের মানুষের স্বার্থে দলের স্বার্থে কাজ করে যাবো। জীবনজুড়ে এই দলের সেবা করে এসেছি আমি।

২০০৯ সাল থেকে দুই দফা ক্ষমতায় ছিলেন জ্যাকব জুমা। তার বিরুদ্ধে একের পর এক দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে। সরে দাঁড়াতে তাকে বুধবার পর্যন্ত সময় বেঁধে দেয় ক্ষমতাসীন দল। নইলে পার্লামেন্টে অনাস্থা ভোটের মুখোমুখি করার হুমকি দেয় এএনসি।

এক বাসিন্দা জানান, সাউথ আফ্রিকা আবারো ঐক্যবদ্ধ হবে। পুরো দেশের জন্যই এটা একটা সুসংবাদ। আমার মনে হয় এতে নতুন করে শুরু করার একটা সুযোগ পাওয়া যাবে।

ফ্রান্সের একটি অস্ত্র বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ঘুষ লেনদেনের অভিযোগ ওঠার পর গত বছরের ডিসেম্বরে দলীয় প্রধানের দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ান জুমা। নেতৃত্বে আসেন তার ডেপুটি সাইরিল রামাফোসা।

প্রেসিডেন্ট পদত্যাগ করায় এবার ডেপুটি প্রেসিডেন্ট সাইরিল রামাফোসার পালা। অবশ্য ২০১৯ সালের সাধারণ নির্বাচনেই চোখ রাখছেন তিনি। জুমার অনুপস্থিতিতে নয় ভোটে জিতেই প্রেসিডেন্ট হতে চান রামাফোসা। বিপুল জনপ্রিয় হলেও জ্যাকব জুমার কারণে গত দুই বার দলের মনোনয়ন পাননি তিনি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here