বর্তমান সমাজে ভালো ছেলে পাওয়া সত্যিই ভাগ্যের ব্যাপার৷ মানে, ভালো ছেলে যে একেবারে নেই তা নয়৷ কিন্তু কজন মেয়ের ভাগ্যে তা জুটেছে, তা গুণে বলে দেওয়া যায়৷ বেশিরভাগ সময় তো দেখা যায় অনেকে সর্বদাই ভয়ে কাঁটা হয়ে থাকেন, তাঁর প্রেমিক অসচ্চরিত্রের নয়তো?

এমন ভয় নির্মূল করার কিন্তু খুব সাধারণ কয়েকটি উপায় রয়েছে৷ একটু মাথা দিয়ে ভাবুন, তাহলে হয়তো আপনিও সম্পর্ক সম্পর্কে সচেতন হতে পারবন৷

কীভাবে নিজেকে প্রেজেন্ট করেছিল সে?

যখন আপনার সঙ্গে তার পরিচয় হয়, সে কি নিজেকে জাহির করেছিল? সোজা কথায় নিজের গাড়ি, টাকা, সম্পত্তি বা হেন আছে, তেন আছে বলেছিল? আর তার সাজপোশাক? সেটা কেমন ছিল? খুব জমকালো জামা বা অ্যাকসেসারিজ পরেছিল? আর সেটা নিয়ে যথেষ্ট দেখনদারি চালাচ্ছিল? তাহলে কিন্তু সতর্ক হন৷ এই ধরনের পুরুষরা সাধারণত মেয়েদের পটাবার তালে থাকে৷ নিজেদের “প্রাইস ট্যাগ” দিয়ে ইমপ্রেশন জমাতে চায়৷

কথা ও কাজের মধ্যে পার্থক্য রয়েছে?

যেভাবে সে আপনার কাছে জাহির করেছে, ব্যক্তিগত জীবনে কী সে তাই? নাকি তার কথা আর কাজের মধ্যে পার্থক্য রয়েছে? যেমন ধরুন, সে ক্রমাগত বলে যাচ্ছে আপনাকে সে নিজের থেকেও বেশি ভালোবাসে৷ অথচ নিজের পরিবার বা বন্ধুদের সঙ্গে আলাপের কোনও ইচ্ছা প্রকাশ করছে না, তাহলে বুঝবেন ডাল মে কুছ কালা হ্যায়৷ আপনাকে হয়তো সে চিরকালের জন্য কাছে রাখতে চায় না৷ ইচ্ছা ফুরোলেই টা টা করে বেরিয়ে যাবে৷

প্রচুর লেট নাইট করে?

লেট নাইটের অভ্যাস অনেকেরই থাকে৷ কিন্তু যদি সে শুধু লেট নাইটেই আপনার সঙ্গে দেখা করে, লেট নাইট ছাড়া আর তার সময় না হয়, তাহলে সাবধান৷ এর কিন্তু অন্য মতলব থাকতে পারে৷ আর যদি সে আপনার সঙ্গে দিনের বেলাতেও ততটাই সাবলীল, যতটা রাতে, তাহলে চিন্তার কোনও কারণ নেই৷

অতিরিক্ত সুখ্যাতি করে?

তোমার সব ভালো৷ এটা ভালো, সেটা ভালো৷ শুধু ভালো আর ভালো৷ এমনই কি ক্রমাগত বলে সে? আপনার মধ্যে কোনও ভুল বা খুঁত তাঁর নজরে পড়ে না? এটা কিন্তু ঠিক নয়৷ প্রত্যেক মানুষই খারাপ-ভালো মিশিয়ে তৈরি৷ সে যদি আপনার মধ্যে কোনও খারাপ দিক না দেখতে পায়, তাহলে আগেভাগেই সচেতন হয়ে যাওয়া ভালো৷

দেখা করার পর ফোন করে না?

দেখা করল, কথা বলল, আপনারা সময় কাটালেন, সবই হল৷ মানে ডেট করা যাকে বলে, তার পুরোটাই হল৷ কিন্তু বাড়ি ফেরার পর সে বেমালুম আপনাকে ভুলে গেল৷ সব মেয়েই চায় কেউ তাকে একটু কেয়ার করুক৷ কিন্তু এক্ষেত্রে হয়তো এটা হল না৷ বাড়ি পৌঁছানোর পর সে আর আপনার সঙ্গে যোগাযোগই করল না৷ এমন ক্ষেত্রে বেশিরভাগ সময় হয় সেই পুরুষ আপনাকে নেহাত খেলাচ্ছলে নিচ্ছে৷ শুধু মজার জন্য হয়তো ব্যবহার করছে আপনাকে৷

তবে সবসময় যে এগুলো ষোলোআনা সফল হবে, তা কিন্তু নয়৷ বেশিরভাগ ক্ষেত্রে অসচ্চরিত্র ব্যক্তির এই ‘গুণ’ গুলি থাকে৷ কিন্তু সেই সঙ্গে এও মাথায় রাখা দরকার ব্যতিক্রম সবকিছুরই থাকে৷ Exception proves the rule.

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here