পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) এর দ্বিতীয় ম্যাচেও হারলো মোস্তুফিজের লাহোর কালান্দার্স। এদিন, মোস্তাফিজ উইকেট শূন্য থাকলেও রান দিতে করেছেন বেশ কৃপণতা। দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শনিবারের দ্বিতীয় ম্যাচে লাহোরকে ৯ উইকেটে হারায় কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স।

অধিনায়ক ম্যাককালামের ৩ চার ও ২ ছক্কায় ১৮ বলে ৩০, নারিনের ৪ চার ও ২ ছক্কায় ১০ বলে ২৮ রানে ৩.৩ ওভারেই ৪৬ রানের উদ্বোধনী জুটি পায় লাহোর।

পরে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে। ডেলপোর্ট ১৫, সাদাফ ১৩, সোহেল অপরাজিত ২০ রানে একশ পার করে নেন। মোস্তাফিজ ৪ বলে এক রানে অপরাজিত থাকেন।

কোয়েটার হয়ে আর্চার ৩টি, নওয়াজ ২টি উইকেট নিয়ে দিনের সেরা। নওয়াজ এদিন ৪ ওভারে এক মেডেনসহ মাত্র ৪ রান খরচ করেছেন ২ উইকেট নিতে।

রান তাড়া করতে নেমে ওয়াটসন ও আসাদ শফিক ৯২ রানের দ্রুতগতির জুটি এনে দেন কোয়েটাকে। ৫টি করে চার-ছক্কায় ৪২ বলে ৬৬ রানে ওয়াটসন ফিরলে ভাঙে জুটি। শফিক ৩৮ ও উমর আমিন ১৩ রানে অপরাজিত থেকে ম্যাচ জিতিয়ে ফেরেন।

ছোট সংগ্রহ, তার উপর নারিন ৪ ওভারে ৪০ রান খরচ করে বসেন এক উইকেট নিতে। মোস্তাফিজের তখন বেশিকিছু করারও ছিল না। ২ ওভার বল করার ডাক পেয়েছেন, তাতে ১০ রান দিয়ে নিজের ছন্দ ধরে রেখেছেন ভালমতোই। ক্যাচ না পড়লে একটি উইকেটও পেতে পারতেন।

ফিজ আগেরদিন ৪ ওভারের কোটা পূরণ করে ২২ রান দিয়ে নিয়েছিলেন ২ উইকেট। মুলতানের ওই ম্যাচে সর্বোচ্চ স্কোরার শ্রীলঙ্কান কিংবদন্তি কুমার সাঙ্গাকারা ও পাকিস্তানি ফখর জামানের উইকেট নিয়েছিলেন কাটার মাস্টার।

শনিবার ষষ্ঠ ওভারে বল হাতে পান ফিজ। ওভারের ৬ বলই সামলান ওয়াটসন। চতুর্থ বলে ২, আর শেষ বলে চার হাঁকান অজি অলরাউন্ডার। পরে নবম ওভারে ডাক পেয়ে দিয়েছেন ৪টি সিঙ্গেল। শেষ বলে মিডউইকেটে ওয়াটসনের ক্যাচ ছেড়েছেন ডেলপোর্ট, তাতে উইকেটশূন্যই থাকতে হয় ফিজকে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here