ইরানের ওপর চাপ সৃষ্টি করার লক্ষ্যে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে ব্রিটেনের পক্ষ থেকে উত্থাপিত প্রস্তাবে ভেটো দিয়েছে রাশিয়া। ইয়েমেনের আনসারুল্লাহ হুথি যোদ্ধাদের কাছে ইরানের কথিত অস্ত্র সরবরাহ বন্ধ করতে ওই প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়েছিল।

ব্রিটেন গত সপ্তাহে নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য দেশগুলোর কাছে এই প্রস্তাবে খসড়া বিতরণ করেছিল। প্রস্তাবে ইয়েমেনের ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা আরো এক বছরের জন্য বৃদ্ধির পাশাপাশি হুথি যোদ্ধাদেরকে অস্ত্র সরবরাহ না করা সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব লঙ্ঘনের দায়ে ইরানকে অভিযুক্ত করা হয়।

কিন্তু সোমবার রাতে নিরাপত্তা পরিষদে অনুষ্ঠিত ভোটাভুটিতে রাশিয়ার ভেটোর কারণে প্রস্তাবটি পাস হতে পারেনি।

২০১৫ সালের মার্চ মাস থেকে আগ্রাসী সৌদি আরব ইয়েমেনের বিরুদ্ধে যে বর্বরোচিত হামলা চালাচ্ছে তা প্রতিহত করছে হুথি যোদ্ধারা। রিয়াদের পছন্দসই সরকারকে ইয়েমেনের ক্ষমতায় বসানোর লক্ষ্যে চালানো এ আগ্রাসনে সৌদি সরকারকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করে যাচ্ছে আমেরিকা ও ব্রিটেন।

সোমবার ব্রিটেনের পক্ষ থেকে উত্থাপিত প্রস্তাবটির প্রতি ফ্রান্স ও আমেরিকা সমর্থন জানিয়েছিল। প্রস্তাবে আরো বলা হয়েছিল, ইয়েমেনে ইরানের কথিত ভূমিকার কারণে দেশটির বিরুদ্ধে অতিরিক্ত ব্যবস্থা নিতে হবে। এটি পাস হলে এর পরবর্তী প্রস্তাবে সেই ‘অতিরিক্ত ব্যবস্থাগুলো’ অনুমোদন করা হতো।

এর আগেও আমেরিকা ও সৌদি আরবসহ কয়েকটি দেশ ইয়েমেনকে অস্ত্র ও ক্ষেপণাস্ত্র দেয়ার দায়ে ইরানকে অভিযুক্ত করেছিল। কিন্তু ইরান এবং ইয়েমেনের হুথি আনসারুল্লাহ যোদ্ধারা সেসব অভিযোগ সরাসরি নাকচ করেছে। হুথি যোদ্ধারা বলেছে, ইয়েমেনের সামরিক বাহিনীই তাদের ক্ষেপণাস্ত্রের শক্তি বাড়িয়েছে।

এ ছাড়া, ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বাহরাম কাসেমি গত মঙ্গলবার বলেছিলেন, ইয়েমেন যখন চারদিক দিয়ে কঠোর অবরোধের সম্মুখীন তখন ইরানের পক্ষে হুথি যোদ্ধাদের কাছে ক্ষেপণাস্ত্র পৌঁছে দেয়ার অভিযোগ অত্যন্ত হাস্যকর।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here