এ বছর হজে যেতে আগ্রহীদের জন্য আজ –বৃহস্পতিবার থেকে অনলাইন নিবন্ধন শুরু হয়েছে আর –এ কার্যক্রম চলবে আরও দশ দিন। বৃহস্পতিবার সকালে হজ প্যাকেজ ঘোষণা করে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান।

তিনি আরো জানান, আগামী ১৪ জুলাই বাংলাদেশ থেকে প্রথম হজ ফ্লাইট সৌদিআরবের পথে রওনা দেবে। গত বছরের মতো এবার যাতে ফ্লাইটের সিডিউল বিপর্যয় ও যাত্রীদের ভোগান্তি পোহাতে না হয় সেজন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের কথাও জানান তিনি। এবার সরকারি-বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় মোট ১ লাখ ২০ হাজার জন হজ পালনে যেতে পারবেন। তবে এবার বিমান ভাড়া বেড়েছে ৭৫ ডলার। হজ পালনকে কেন্দ্র করে সরকারি-বেসরকারি উভয় ব্যবস্থাপনায়ই চরম বিশৃংখলার নজির রয়েছে বিগত দিনে। এই বিশৃংখলা দূর করে হজে যেতে আগ্রহীদের ভোগান্তি কমাতে এবার দুই প্যাকেজে যাত্রী পাঠানোর উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। সেইসঙ্গে গোটা হজ ব্যবস্থাপনায়ও আনা হয়েছে পরিবর্তন। সকালে এ সংক্রান্ত সংবাদ সম্মেলনে ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান এসব তথ্য তুলে ধরেন। হজ নীতিতে নতুন যুক্ত হয়েছে: এবার সকল নিবন্ধন হবে অনলাইনে। নিবন্ধনের পরে হজযাত্রীর মৃত্যু না হলে প্রতিস্থাপন হবে না। পুলিশ ভেরিফিকেশন হবে না। নির্দিষ্ট আকার ও জাতীয় পতাকা খচিত ট্রলিব্যাগ ও কীটব্যাগ হাজিদেরই ক্রয় করতে হবে। এর বাইরেও হজ নীতিতে, মানুষ যাতে প্রতারণার শিকার না হয় সেজন্য মধ্যস্বত্ত্বভোগীদের সঙ্গে আর্থিক লেনদেন না করে, সরকার অনুমোদিত হজ এজেন্সির সঙ্গে লেনদেনের পরামর্শ দেয়া হয়েছে। নিবন্ধনকারী হজ এজেন্সিকে তার নিবন্ধিত সকল হজযাত্রীর সকল দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এবার দুই প্যাকেজে হজ যাত্রী পাঠানো হচ্ছে।

ধর্মমন্ত্রী জানান, গতবার হজের সময় অনিয়নের জন্য ৬৪টি হজ এজেন্সির লাইসেন্স বাতিল করে জামানত বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। ১৭টি লাইসেন্স স্থগিত করে জরিমানা এবং ৪৯টি এজেন্সিকে জরিমানার পাশাপাশি তিরস্কার করা হয়েছে। এর বাইরে ১২টি এজেন্সিকে সতর্ক এবং ৫১টিকে অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে বলে জানান মন্ত্রী। ১৪ জুলাই হজ ফ্লাইট শুরুর তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে জানিয়ে ধর্মসচিব আনিছুর রহমান বলেন, এবার যাতে ফ্লাইট বিপর্যয় না হয় সে বিষয়ে নিবিড় পর্যবেক্ষণ করা হবে আর এবার থার্ড ক্যারিয়ারের কথা চিন্তা করা হচ্ছে না। হজযাত্রীদের ২৮ হাজার টাকা জমা দিয়ে প্রাক-নিবন্ধন করতে হয়েছে।

এখন যে যে প্যাকেজের অধীনে হজে যাবেন, সেই প্যাকেজের বাকি টাকা জমা দিয়ে নিবন্ধন করতে হবে। সরকারি ব্যবস্থাপনায় প্যাকেজ-১ এর আওতায় হজে যেতে এবার ৩ লাখ ৯৭ হাজার ৯২৯ টাকা এবং প্যাকেজ-২ এর আওতায় ৩ লাখ ৩১ হাজার ৩৫৯ টাকা লাগবে। প্রাক-নিবন্ধনের সময় জমা দেয়া ২৮ হাজার টাকা বাদে প্যাকেজ-১ এর হজযাত্রীদের ৩ লাখ ৬৯ হাজার ৯২৯ টাকা এবং প্যাকেজ-২ এর যাত্রীদের ৩ লাখ ৩ হাজার ৩৫৯ টাকা সোনালী ব্যাংকের মতিঝিলের স্থানীয় কার্যালয় শাখায় ০০০২৩৩০০৯০৮ (Sale proceeds of Hajj Deposit) ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অ্যাকাউন্টে জমা দিতে হবে। যেসব ব্যক্তি ২০১৫, ২০১৬ ও ২০১৭ সালে হজ করেছেন অথবা ভিসা পেয়েও হজে যাননি তাদের মধ্যে যারা এবার হজ করবেন তাদের অতিরিক্ত ৪৬ হাজার ৯৩৫ টাকা ওই অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে পরিশোধ করতে হবে। কেউ আলাদা ফ্লাইটে হজে যেতে চাইলে অবশ্যই আলাদাভাবে নিবন্ধন করতে হবে।

 বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রীদের কাছ থেকে ৩ লাখ ৩১ হাজার ৩৫৯ টাকার কম নেয়া যাবে না জানিয় ধর্ম সচিব বলেন, বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার উপর নির্ভর করে এই টাকার অঙ্গে হেরফের হবে। এবারের হজ কার্যক্রমে অংশ নেয়ার জন্য ৭৭৪টি হজ এজেন্সিকে অনুমোদন দেয়া হয়েছে জানিয়ে আনিছুর বলেন, যারা ভালো করবে তাদের পুরস্কৃত করা ছাড়াও প্রণোদনা ও সনদ দেয়া হবে। সৌদি আরবের সঙ্গে হজ চুক্তি অনুযায়ী বাংলাদেশ থেকে এবার এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজ করতে পারবেন। এরমধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় সাত হাজার ১৯৮ জন এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এক লাখ ২০ হাজার জন। চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ২১ অগাস্ট হজ হতে পারে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here