চ্যাম্পিয়ন্স লিগে শেষ ষোলোর ফিরতি লেগে ঘরের মাঠে পোর্তোর বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করে লিভারপুল। যদিও প্রথম লেগে পোর্তোর মাঠে ৫-০ গোলে জয় পায় লিভারপুল। সেই জয়ে মোটামুটি নিশ্চিত ছিলো কোয়াটার ফাইনাল। এই দিনের ম্যাচে দলের তিন জনকে বিশ্রামে রাখেন লিভারপুল।

মঙ্গলবার অ্যানফিল্ডে গোলশূন্য ড্র করে দুই লেগ মিলিয়ে ৫-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে দীর্ঘ ৯ বছর পর চ্যাম্পিয়ন লিগের শেষ আট নিশ্চিত করলো লিভারপুল। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর দ্বিতীয় লেগে ড্রসহ সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে খেলা ছয় ম্যাচে পর্তুগালের দলটির কাছে অজেয় থাকল লিভারপুল।

সেরা আটে ঠাঁই পেতে হলে প্রতিপক্ষের মাঠে পর্তুগালের দলটাকে একরকম অসাধ্য সাধন করতে হতো। কিন্তু লিভারপুলের জাল একবারের জন্যও খুঁজে পায়নি তারা।

নিজেদের মাঠে খেলতে নামা লিভারপুল এগিয়ে যেতে পারত অষ্টাদশ মিনিটে। কিন্তু মানের ডান পায়ের শট অল্পের জন্য ক্রসবারের ওপর দিয়ে যায়।

৩১তম মিনিটে জেমস মিলনারের বাড়ানো বলে মানের নেওয়া শট বাঁ দিকের পোস্টে লেগে প্রতিহত হয়। চার মিনিট পর ক্রোয়েশিয়ান ডিফেন্ডার দেইয়ার লোভরেনের হেড লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে লিভারপুল সমর্থকদের হতাশা আরও বাড়ে।

দ্বিতীয়ার্ধেও বলের নিয়ন্ত্রণে এগিয়ে ছিল লিভারপুল। তবে স্বাগতিকরা কাঙ্ক্ষিত গোল পায়নি মিশরের ফরোয়ার্ড মোহামেদ সালাহর প্রচেষ্টা লক্ষ্যভ্রষ্ট হওয়ায়। পোর্তো পারেনি তেমন কোনো সুযোগ তৈরি করতে।

ম্যাচের ৬৫% সময় বল ছিল লিভারপুলের দখলে।গোল টার্গেটে যেখানে লিভারপুলের শট ৫টি সেখানে পের্তোর মাত্র ১টি। তবে কর্নারের দিকে এগিয়ে পের্তো। তাদের ৩টি লিভারপুলের ১টি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here