পাট উন্নয়ন করপোরেশনের কাজ নেই। অনেক টাকা দেওয়া হয়েছে তাদের। তারা লোকসান থেকে বের হতে পারছে না। যে পদ্ধতিতে কাজ চলছে, তাতে পাটের উন্নয়ন হবে না বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তিনি বিজেএমসি বিলুপ্ত করে দেওয়া উচিত বলেও মন্তব্য করেন।

বুধবার বুধবার অর্থ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অর্থ বিভাগ ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের কর্মকর্তা কর্মচারীর সমিতির উদ্যোগে স্মরণিকা প্রকাশ অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বক্তব্য প্রদানের আগে স্মরণিকা ‘প্রয়াস’ এর মোড়ক উন্মোচন করেন অর্থমন্ত্রী।

পাট প্রতিমন্ত্রীর বক্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, এটা তার ব্যক্তিগত অভিমত। সুতরাং এটার ব্যাপারে আমি কোন মন্তব্য করতে চাই না। অসুবিধা যেটা আমাদের হয়, পাটকে আমরা রিভাইস করতে চাই। পাটের একটা নতুন বাজারও সৃষ্টি হয়েছে। কিন্তু রিভিশনের প্রক্রিয়াটা আমার ভালো লাগছে না।

তিনি বলেন, এই প্রক্রিয়ায় ওল্ড বিজেএমসি’র এক্সিসটেন্সের (থাকার) কোন প্রয়োজন নেই বলে আমি মনে করি। আমি তাদের (বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়) বলেছি বিজেএমসির কোন জায়গা নেই এই নতুন ব্যবস্থায়।

মন্ত্রী বলেন, নতুন ব্যবস্থা আমরা বলছি পিপিপি (সরকারি বেসরকারি অংশীদারত্ব) প্রজেক্ট হবে সবগুলো। সেখানে বিজেএমসি ইট সুড বি অ্যাবুলিশ (বিলোপ করা)।

অর্থমন্ত্রী বলেন, বিজেএমসি একদম বন্ধ করে দেয়া উচিত। ইট সুড নট হ্যাভ এনি, মন্ত্রণালয়ে সমন্বয়ের একটা সেল থাকবে, তারাই সব দেখবে। আমি তাদের অফিসিয়ালি পর্যন্ত বলেছি। বাট দে ডু নট অবলাইজ। তারা বিজেএমসির খপ্পরে পড়েছে।

গত সোমবার প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার ২ বছরেও প্রক্রিয়াজাত কৃষিপণ্য হিসেবে পাট তালিকাভুক্ত না হওয়ার জন্য অর্থমন্ত্রণালয়কে দায়ি করেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here