মানুষ সুন্দরের পূজারি। সৌন্দর্যের কোনো দেশ হয় না। প্রবাদটা একশো শতাংশ সত্যি। প্রতিটি দেশেই আছে সুন্দর সব নারী। নারীর সৌন্দর্য আসলে তার রূপে নয়। নারীর সৌন্দর্য হলো তার মনে। তবুও রূপের বিষয়টি নিয়ে আলোচনার কোনো শেষ নেই। চলুন পাঠক সৌন্দর্যের জায়গা থেকে কোন দেশের নারীরা এগিয়ে আছেন নজর দেয়া যাক।

১. রাশিয়া: রাশিয়ান নারীদের চমৎকার ত্বক, নীল চোখ ও অসাধারণ ফিগার ও উচ্চতা- বিশ্বের চোখে তাদের মোহময়ী করে তুলেছে।

২. ইতালি: ট্যানড স্কিন ও বাদামি চুল ইতালির নারীদের করে তোলে তুমুল আবেদনময়ী।

৩. ব্রাজিল: ব্রাজিলিয়ানস গার্লস, বিশেষত ব্লন্ড ও ব্রুনেটরা তাদের স্পোর্টি লুকসের জন্য বিখ্যাত।

৪. ভেনেজুয়েলা: জানেন কি? ভেনেজুয়েলা থেকে বহু সুন্দরীই আন্তর্জাতিক সৌন্দর্য প্রতিযোগিতায় শীর্ষ স্থান পেয়েছেন। আজ পর্যন্ত বহু ললনাই এ দেশ থেকে মিস ইউনিভার্স ও মিস ওয়ার্ল্ডের তকমা জিতেছেন।

৫. ইউক্রেন: বিশ্বের সবথেকে সুন্দরী ও সাহসী মহিলারাই বোধহয় ইউক্রেনে থাকে।

৬. আর্জেন্টিনা: এখানকার মেয়েদের ত্বক ও চুলের খ্যাতি বিশ্বজোড়া।

৭. ভারত: ভারতীয় ললনাদের সৌন্দর্যের আবেদনের খ্যাতি বিশ্বজোড়া।

৮. সার্বিয়া: মেডিটেরানিয়ান সৌন্দর্য দেখতে হলে দেখতে হবে সার্বিয়ার মেয়েদের। শুনলে অবাক হবেন, সার্বিয়ার ৯৯ শতাংশ মহিলাকেই এত সুন্দর দেখতে, তারা যে কোনো চিত্রতারকাকেই কমপ্লেক্স দিতে সক্ষম।

৯. পাকিস্তান: পাক সুন্দরীদের রূপের খ্যাতি বিশ্বজোড়া।

১০. ফ্রান্স: ফ্রেঞ্চ ওম্যানদের অ্যাটিটিউডই তাদের আবেদন শতগুণ বাড়িয়ে তোলে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here