নেপালে ইউএস-বাংলার উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হয়ে নিহত বাংলাদেশিদের মধ্যে ২৩ জনের মরদেহ আজ দেশে ফিরবে। বিকেল ৪টায় আর্মি স্টেডিয়ামে তাদের দ্বিতীয় জানাজা। সেখানে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর আগে সকালে কাঠমান্ডুতে বাংলাদেশ দূতাবাসে তাদের প্রথম জানাজা হয়।

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) পক্ষ থেকে মোবাইলে পাঠানো এক খুদে বার্তায় বলা হয়, মরদেহগুলো নিয়ে বিমানবাহিনীর একটি উড়োজাহাজ বেলা ৩টায় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ভিআইপি পার্কিং-১–এ অবতরণ করবে। বিকেল ৪টায় আর্মি স্টেডিয়ামে তাদের জানাজা হবে। সেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপস্থিত থাকবেন।

যেসব যাত্রীর মৃতদেহ ঢাকায় আনা হচ্ছে তারা হলেন- প্রধান পাইলট ক্যাপ্টেন আবিদ সুলতান, ফাস্ট অফিসার পৃথুলা রশীদ, বিমান ক্রু খাজা হোসেন মোহাম্মদ শফি ও শারমিন আক্তার নাবিলা, যাত্রী ফয়সল আহমেদ, বিলকিস আরা, বেগম হুরুন নাহার বিলকিস বানু, আক্তারা বেগম, নাজিয়া আফরিন চৌধুরী, রকিবুল হাসান, সানজিদা হক, হাসান ইমাম, আখি মণি, মিনহাজ বিন নাসির, এফএইচ প্রিয়ক, তামারা প্রিয়ন্ময়ী, মতিউর রহমান, এসএম মাহমুদুর রহমান, তাহিরা তানবিন শশী রেজা, উম্মে সালমা, অনিরুদ্ধ জামান, নুরুজ্জামান ও রফিক উজ জামান।

এদিকে সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ২৩ বাংলাদেশির মরদেহ নিহত ব্যক্তিদের মরদেহ টিচিং হাসপাতালের মর্গ থেকে নেপালে বাংলাদেশ দূতাবাসে নিয়ে যাওয়া হয়। ৯টার দিকে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

গত ১২ মার্চ কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলার উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হওয়া বিমানে ৪ ক্রুসহ ৭১ আরোহী ছিল। এদের মধ্যে ২৬ বাংলাদেশি, ২২ নেপালি ও ১ জন চীনাসহ ৫১ জন নিহত হয়। আর ১০ বাংলাদেশি, ৯ নেপালি ও ১ মালদ্বীপের নাগরিকসহ ২০ জন আহত হন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here