নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় বেঁচে যাওয়া এমরানা কবির হাসির বাঁ হাতের চারটি আঙুল কেটে ফেলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তার চিকিৎসক। রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) এ শিক্ষক এখন সিঙ্গাপুরের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। গত ১২ মার্চ কাঠমান্ডুর ইউএস-বাংলা বিমান দুর্ঘটনার পর আহত দুই বাংলাদেশিকে সিঙ্গাপুরে নেওয়া হয়, তাদের একজন হাসি। স্বামী সফটওয়্যার প্রকৌশলী রকিবুল হাসানের সঙ্গে নেপাল ঘুরতে যাচ্ছিলেন তিনি। তবে রকিবুল নিহত হন।

গুরুতর আহত হাসিকে নেপাল থেকে সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। ওই হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের কনসালট্যান্ট ডা. সি জ্যাকের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা নিচ্ছেন। ডা. জ্যাকের বরাত দিয়ে ঢাকা মেডিক্যালের বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের আবাসিক সার্জন ডা. হোসেইন ইমাম বলেন, এমরানা কবির হাসির বাঁ হাতের চারটি আঙুল কেটে ফেলতে হয়েছে। দুর্ঘটনার সময় বাঁ হাত দিয়ে তিনি হয়তো কিছু হোল্ড করেছিলেন। বার্ন আউট হয়ে তার আঙুলে আর কিছু ছিল না, আমরা নেপালেই দেখেছি।

হাসি রিকভার করছে, এখন তার ব্লাডে কিছু ইনফেকশন আছে। আরও কিছু চিকিৎসা লাগবে, বলেন নেপাল ঘুরে আসা এই চিকিৎসক। ডা. জ্যাকের বরাত দিয়ে ডা. হোসেইন ইমাম আরো বলেন- রিজওয়ান ভালো আছেন, তিনি হাঁটাচলা করতে পারছেন। তার ড্রেসিং চেঞ্জ করা হয়েছে। এখন সাইকিয়াট্রিক থেরাপি চলছে। আশা করা হচ্ছে, আগামী সপ্তাহে পিঠের চামড়াটা লাগিয়ে ২৮ বা ২৯ তারিখের দিকে তারা তাকে রিলিজ করে দেবেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here