ঢাকা চলচ্চিত্রের এক সময়ের জনপ্রিয় জুটি শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস। লোকচক্ষুর আড়ালে নয় বছরের বেশি সময় তারা সংসারও করেছেন। আব্রাম খান জয় নামে তাদের এক সন্তান রয়েছে। তবে হঠাৎ এক ঝড় এসে সব এলোমেলো করে দেয়। গত ১২ মার্চ আনুষ্ঠানিকভাবে বিচ্ছেদ হয় এ তারকা দম্পতির।

তার এক সপ্তাহ পর ১৮ মার্চ সন্তানসহ কলকাতায় যান অপু বিশ্বাস। সেখানে আবার ‘ভাইজান এলো রে’ ছবির শুটিং করছিলেন শাকিব খান। তাই শুটিং সেটেই তাদের দেখা। আব্রাম খান জয়কে কাছে পেয়ে ভীষণ উচ্ছ্বসিত হন বাবা শাকিব।

এ সময় ছবির নায়িকা কলকাতার শ্রাবন্তীও নায়কের ছেলেকে কোলে নিয়ে আনন্দে মাতেন। চলে ফটোসেশনও। এর পরই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছবিগুলো ভাইরাল হয়। যদিও কোনো ছবিতেই শাকিব-অপুকে এক সঙ্গে দেখা যায়নি।

ভারতে বিভিন্ন স্থানে প্রায় এক সপ্তাহ কাটিয়ে শুক্রবার ঢাকায় ফিরেছেন অপু বিশ্বাস। কলকাতায় যাওয়ার কারণ জানতে চাইলে অপু বিশ্বাস বলেন, ‘ছেলের একটা মানত ছিল, সে কারণেই ভারতে গিয়েছিলাম। সেখানে আমার পরিবারের লোকজন বেশি থাকে। আমরা সবাই একসঙ্গে ঘোরাঘুরি করেছি। বলতে পারেন আমাদের গেট টুগেদার।’

শাকিব প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘বাবুর (জয়) বাবা সেখানে বাবুকে নিয়ে যেতে আমাকে ডেকেছেন। নিজ দায়িত্বেই গাড়ি, হোটেল রুম ঠিক করা, শপিং করানোসহ সব কিছু করেছেন। আমরা দ্য পার্ক হোটেলে (কলকাতা) পাশাপাশি রুমে এক রাত ছিলাম। বাবুর বাবা বলেছিলেন, আরো একদিন থাকতে। কিন্তু মানতের কারণে থাকতে পারিনি।’

তবে শাকিবের ঘনিষ্ঠজনরা বলছেন, অপু যে হোটেলে ছিলেন সেখানে শাকিবের থাকার প্রশ্নই ওঠে না। কলকাতায় গেলে শাকিব সব সময় গ্র‍্যান্ড ওভেরয়ে থাকেন।

এ ঘটনার পর ইন্ডাস্ট্রিতে চাউর হয়েছে, অপু বিশ্বাস মনে করেন একজন নায়িকার সঙ্গে শাকিবের বিশেষ বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের কারণে তাদের ডিভোর্স হয়েছে। আর তাইতো তিনি চাইছেন একই হোটেলে পাশাপাশি রুমে রাত কাটানোর কথা বলে শাকিব এবং ওই নায়িকার মধ্যে ঝামেলা বাঁধিয়ে দিতে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here