রক্ষণশীলতাকে তুড়ি মেরে পাকিস্তানে প্রথমবারের মত একটি টিভি চ্যানেলে সংবাদ পাঠ করেছেন মারভিয়া মালিক নামে একজন হিজড়া। তিন মাস প্রশিক্ষণ শেষে নিউজ চ্যানেল কোহিনূর টিভিতে গত শুক্রবার প্রথম সংবাদ পাঠ করেন তিনি। এর মধ্য দিয়ে পাকিস্তানে তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম অনেকদূর এগিয়ে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

সাংবাদিকতায় স্নাতক মারভিয়া মালিক বিবিসিকে বলেন, ‘আমাকে যখন এ চাকরির প্রস্তাব দেওয়া হয় আমি খুশিতে চিৎকার করে কেঁদে উঠেছিলাম। আমি নিজের জন্য এ স্বপ্ন দেখেছিলাম। এখন সেই স্বপ্ন পূরণের পথে প্রথম সিঁড়িতে চড়তে পেরেছি।’

এক সময় ফ্যাশন মডেল হিসেবে কাজ করা মারভিয়া জানান, পাকিস্তানে হিজড়াদের নানা বৈষম্যের শিকার হতে হয়। চাকরি যোগাড় করতেও অনেক লড়াই করতে হয়। তিনিও করেছেন। তিনি বলেন, ‘আমাদেরকেও অন্য সব মানুষের মতো সমান নজরে দেখা উচিত। কোনো ধরনের লিঙ্গ বৈষম্য থাকলে চলবে না। আমাদের সমান অধিকার দেওয়া উচিত এবং একজন হিজড়া হিসেবে নয় বরং একজন সাধারণ নাগরিক হিসেবে বিবেচনা করা উচিত।’

কোহিনূরের মালিক জুনাইদ আনসারি বলেন, তারা মারভিয়াকে যোগ্যতার ভিত্তিতে নির্বাচিত করেছেন। এখানে লিঙ্গ কোনো বিষয় ছিল না।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here