পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহিদ খকন আব্বাসিকে হেনস্থার অভিযোগ উঠেছে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের জন এফ কেনেডি বিমানবন্দরের কর্মীদের বিরুদ্ধে। যদিও নিউইয়র্ক প্রশাসন সেই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে জানিয়েছে, যা হয়েছে তা নিছকই নিয়মরক্ষার তল্লাশি।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যমের দাবি, জেএফকে বিমানবন্দরে পোশাক খুলে তল্লাশি করা হয়েছে তাদের প্রধানমন্ত্রীকে। পাকিস্তানের টেলিভিশন চ্যানেলে প্রদর্শতি ভিডিওতে দেখা গেছে, সিকিউরিটি চেক শেষ হয়ে গেলে বিমানবন্দর থেকে বের হওয়ার সময় আব্বাসির হাতে নিজের কোট ও ব্যাগ ছিল। কিন্তু সিকিউরিটি চেকিংয়ের আগে আব্বাসি সেই কোট পড়ে ছিলেন। যা মুহূর্তেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়।

এক ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে জানায়, গত সপ্তাহে ব্যক্তিগত সফরে যুক্তরাষ্ট্র যান আব্বাসি। তিনি সেখানে তার বোনের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন।

কেন একটি দেশের প্রধানমন্ত্রীকে এভাবে পোশাক খুলে তল্লাশি করা হলো, তা নিয়ে সরব হয়েছে পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম। কোনও দেশের রাষ্ট্রপ্রধানকে এভাবে সাধারণের মতো করে তল্লাশি করা যায় কি না, সে ব্যাপারেও প্রশ্ন তুলেছে তারা।

যদিও এই মুহূর্তে পাকিস্তানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের কূটনৈতিক সম্পর্ক মোটেই ভাল নয়। মঙ্গলবারই পাকিস্তানের সাতটি সংস্থাকে যুক্তরাষ্ট্রের সুরক্ষার পক্ষে ঝুঁকিপূর্ণ বলে চিহ্নিত করেছে ট্রাম্প প্রশাসন। এই পরিস্থিতিতে আব্বাসির ঘটনা নতুন বিতর্ক তৈরি করতে পারে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞ মহল।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here