‘পরিবেশবান্ধব উড়োজাহাজ’ সে আবার কী! এটা ঠিক, পরিবেশ দূষণে একটা বড় ভূমিকা রাখছে উড়োজাহাজ। কিন্তু এই খাতে কি এমন কোনো উড়োজাহাজ ব্যবহার সম্ভব যা পরিবেশের কোনো ক্ষতি করবে না? জার্মানিতে এমন ধরনেরই এক উড়োজাহাজ তৈরিতে কাজ করছেন চট্টগ্রামের মেয়ে দেবযানী ঘোষ।

জার্মানির উল্ম বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক দেবযানী যে ধরনের উড়োজাহাজ তৈরির চেষ্টা করছেন তা কোনো সাধারণ মানের নয়। জার্মানিতে প্রথাগত জ্বালানি ছাড়াই উড়তে সক্ষম উড়োজাহাজ তৈরির চেষ্টা করছেন তিনি।

হাইড্রোজেন ফুয়েল সেল ব্যাটারি সিস্টেম থেকে পাওয়া শক্তিতে চলবে হাইফোর বা এইচওয়াইফোর নামে পরিচিত উড়োজাহাজটি৷ এভাবে উৎপাদিত জ্বালানি পরিবেশের কোনো ক্ষতি করবে না অর্থাৎ, বিমানটি চলার সময় কার্বন ডাই অক্সাইড নিঃসরণ একেবারেই হবে না।

এমন উড়োজাহাজ পৃথিবীতে এটাই প্রথম। জার্মানির মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র ডিএলআরের পৃষ্ঠপোষকতায় হাইফোর বিমান তৈরির প্রকল্পে সম্পৃক্ত রয়েছে উল্ম বিশ্ববিদ্যালয়সহ একাধিক প্রতিষ্ঠান। উল্ম বিশ্ববিদ্যালয়ে এই প্রকল্পের নেতৃত্বে রয়েছেন অধ্যাপক ইয়োসেফ ক্যালো। তার অধীনেই কাজ করছেন দেবযানীর মতো বেশ কয়েকজন তরুণ গবেষক৷ ইতোমধ্যে সাড়া জাগিয়েছে তাদের গবেষণা।

এরইমধ্যে সফলভাবে পরীক্ষামূলক উড়াল সম্পন্ন করেছে চার সিটের হাইফোর উড়োহাজাটি। এখন চলছে আরো বড় উড়োজাহাজ তৈরির কাজ।
মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন মনে করে, বর্তমানের যে পাঁচটি উদ্ভাবন ভবিষ্যতে বিশ্বকে রক্ষা করবে, তার একটি এই উড়োজাহাজ। গবেষকদেরও আশা, আগামী কয়েক বছরের মধ্যে স্বল্প দূরত্বে যাত্রী পরিবহনে পরিবেশবান্ধব এই উড়োজাহাজ ব্যবহার সম্ভব হবে। খবর ডয়চে ভেলের।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here