রংপুরে জাপানি নাগরিক হোসি কুনিও এবং মাজারের খাদেম রহমত আলী হত্যা মামলার প্রধান আইনজীবী রথিশ চন্দ্র ভৌমিক বাবু সোনার খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত তার খোঁজ না পেয়ে স্বজনরা থানায় জিডি করেছেন।

রথিশ চন্দ্র ভৌমিক বাবু সোনা রংপুর বিশেষ জজ আদালতে সরকার পক্ষে মামলা দুটি পরিচালনা করছিলেন। তার নেতৃত্বে ওই দুই মামলায় সাত জঙ্গির ফাঁসি হয়েছে। এ ছাড়াও তিনি রংপুর আইনজীবী সমিতির নির্বাচিত কোষাধক্ষ্য এবং জেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। একইসঙ্গে রংপুর জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদের ট্রাস্টিও ছিলেন তিনি।

অ্যাডভোকেট রথিশের স্ত্রী দীপা ভৌমিক জানান, শুক্রবার সকাল ৬টার দিকে কাজের কথা বলে তার স্বামী বাইরে যান। কিছুক্ষণের মধ্যেই ফিরে আসবেন বলে পায়জামা-পাঞ্জাবি পড়া এক ব্যক্তির সঙ্গে একটি লাল মোটরসাইকেলে করে চলে যান তিনি। এরপর থেকে তার আর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। তার মোবাইল ফোনটিও বন্ধ রয়েছে।

আইনজীবী রথিশের ছোট ভাই সাংবাদিক সুশান্ত ভৌমিক জানান, তার জরুরি কাজে শুক্রবার ঢাকায় গিয়েছিলেন। সেখানে থাকা অবস্থাতেই খবর পান তার ভাইয়ের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। পরে রাতেই তিনি ফোনে রংপুরের পুলিশ সুপার মিজানুর রহমানকে বিষয়টি অবহিত করেন।

এ বিষয়ে রংপুর কোতোয়ালি থানার ওসি বাবুল মিয়া জানান, বিষয়টি জানার পর পুলিশ, র‌্যাব ও পিবিআইসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা অ্যাডভোকেট রথিশের খোঁজে মাঠে নেমেছেন। জঙ্গিদের মামলা পরিচালনাসহ বিভিন্ন বিষয় মাথায় নিয়ে আমরা কাজ করছি। তার মোবাইল ফোনটিও ট্রাকিং করে দেখা হচ্ছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here