বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শ্যালিকার সঙ্গে সম্পর্ক করে ফেঁসে গেছেন রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার এক শিক্ষক। এবার বিয়ের দাবিতে মেয়েটি বাড়িতে অবস্থান নেওয়ায় ওই শিক্ষক গাঢাকা দিয়েছেন। ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে। এলাকার প্রভাবশালীরা বিষয়টি আপসে রফার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন।

জানা গেছে, উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নের জামদানি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মনিরুল ইসলাম সাবু বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তার মামাতো শ্যালিকার সঙ্গে তিন বছর ধরে সম্পর্ক গড়ে তোলেন। ধাপেরহাট মণিকৃষ্ণ সেন ডিগ্রি কলেজ থেকে ওই ছাত্রী এবার এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে। বিষয়টি জানাজানি হলে সম্প্রতি শিক্ষকের স্ত্রীর ভাইসহ পরিবারের লোকজন ওই ছাত্রীকে ব্যাপক মারধর করে। এরপরই বিয়ের দাবিতে ওই মেয়ে শিক্ষকের বাড়িতে অবস্থান নেয়।

এদিকে ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে রোববার বিকেল সাড়ে ৫টায় পীরগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছেন। তাই ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মেয়েটিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অন্যদিকে মামলা তুলে নিতে প্রধান শিক্ষক মনিরুল ইসলাম সাবুর পরিবারের পক্ষ থেকে ভয়-ভীতি দেখানো হচ্ছে বলে অভিযোগ।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোসলেম জানান, মামলায় পাঁচজনকে আসামি করা হয়েছে, বর্তমানে সবাই পলাতক। তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here