নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলায় মাদ্রাসাপড়ুয়া এক ছাত্রীকে (১৩) ধর্ষণের অভিযোগে সাদ্দাম হোসেন (২৫) নামের এক যুবককে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

সোমবার বিকেলে উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নে ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটে। সাদ্দামের বাড়ি একই উপজেলার কয়রা গ্রামে।

স্থানীয়রা জানান, ওই ছাত্রী স্থানীয় একটি মাদ্রাসায় পড়ে। সোমবার দুপুরে মেয়েটি নাজিরপুর ইউনিয়নের কয়রা গ্রামে তার নানাবাড়ি বেড়াতে যাচ্ছিল। পথে হঠাৎ মুষলধারে বৃষ্টি নামে। এ সময় সে কয়রা গ্রামে নির্মাণাধীন একটি বাড়িতে আশ্রয় নেয়। তখন বখাটে সাদ্দাম মেয়েটিকে একা পেয়ে ধর্ষণ করেন। পরে মেয়েটির চিৎকারে লোকজন এগিয়ে এলে সাদ্দাম পালিয়ে যান।

কয়রা গ্রামের স্থানীয় লোকজন ও মেয়েটির নানাবাড়ির স্বজনেরা মেয়েটিকে উদ্ধার করেন। তারা তাকে কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। এই হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাকে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। এই হাসপাতালেই তার চিকিৎসা চলছে। বর্তমানে সে শঙ্কামুক্ত।

কলমাকান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, মঙ্গলবার ওই ছাত্রীর বাবা সাদ্দামকে আসামি করে কলমাকান্দা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। তাকে জিজ্ঞাসাবাদে রিমান্ডে নেয়া হবে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here