গত কয়েকদিন ধরে কলকাতা শহর উত্তাল একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে। গত সোমবার রাতে মেট্রোরেলের মধ্যে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দাঁড়িয়েছিল এক যুগল। ওই ট্রেনে থাকা একদল সহযাত্রীদের দাবি ছিল, ওই যুবক-যুবতীর চালচলন অশ্লীল ছিল। প্রকাশ্যে অশ্লীল আচরণ করার অপরাধেই প্রথমে প্রতিবাদ শুরু করেন কিছু যাত্রী। এরপরই তাদের টেনে শুরু হয় মারধর। বেধড়ক মারের চোটে গুরুতর জখম হয় যুবক। প্রেমিককে বাঁচাতে গিয়ে আক্রান্ত হতে হয় তরুণীটিকেও।

সমগ্র ঘটনার ছবি এবং ভিডিও মোবাইলে তুলে তা সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেয় অন্যান্য সহযাত্রীরা।

বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই কলকাতা জুড়ে ঝড় উঠেছে প্রতিবাদের। মেট্রো রেলে যুগল হেনস্থার বিরুদ্ধে প্রতিবাদে নেশেছ একদল তরুণ-তরুণী। দমদম মেট্রো স্টেশন চত্বরে গিয়ে বিক্ষোভ করে তারা। তাদের দাবি, যারা ছেলেটি ও মেয়েটিকে শারীরিকভাবে হেনস্তা করেছে, তাদের নামে এফআইআর দায়ের হোক। আমরা চুমু খাব যখন যেখানে ইচ্ছে, তাতে কার বাপের কী? এবার এ নিয়ে মুখ খুলেছেন কলকাতার তারকারাও।

বিরসা দাসগুপ্ত, নচিকেতা ও তসলিমা নাসরীন

সঙ্গীতশিল্পী নচিকেতা তীব্র নিন্দা করে একটি সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, ‘বহু বছর আগে আমি একটি গানে বলেছিলাম, প্রকাশ্যে চুমু খাওয়া এ দেশে অপরাধ, ঘুষ খাওয়া নয়। অদ্ভুতভাবে সেই এখন আমাদের দেশে প্রযোজ্য। এখানে ইউ কান্ট কিস ইন পাবলিক প্লেস বাট ইউ ক্যান পিস ইন পাবলিক প্লেস। খুবই লজ্জাজনক একটি ঘটনা। ছেলে-মেয়ে দুটি প্রহৃত হল কয়েকজন বুড়োর দ্বারা, যারা যৌন ঈর্ষায় আক্রান্ত। এটা রীতিমত অপরাধ। তাদের বিরুদ্ধে শাস্তির ব্যবস্থা করা উচিত। আর যারা যারা ওই মেয়েটিকে মেরেছে তারা মনে মনে আসলে মেয়েটিকে রেপ করেছে। যারা মেয়েটির গায়ে হাত তুলেছে তারা প্রত্যেককে রেপিস্ট। এক ধরণের তালিবানি হিসেব শুরু হয়েছে। পুরো ব্যাপারটাই আপেক্ষিক। কো নির্ধারণ করবে কোনটা শ্লীল কোনটা অশ্লীল?’

টলিউড পরিচালক বিরসা দাসগুপ্ত টুইটারে একটি কবিতা পোস্ট করে এই ঘটনার প্রতিবাদ করেছেন। বিরসা ছাড়াও বাংলাদেশের নারীবাদী লেখিকা তসলিমা নাসরিন তার প্রতিক্রিয়াস্বরূপ ট্যইটারে লেখেন, ‘হিংসা, ঘৃণার অনুমতি রয়েছে কিন্তু ভালোবাসার নেই। ‘প্রজাপতি বিস্কুট’ ছবির আদিত্য সেনগুপ্ত তার বান্ধবীর অসংখ্য মানুষের সঙ্গে টালিগঞ্জ মেট্রো স্টেশনে উপস্থিত থেকে এই ঘটনার প্রতিবাদ জানান।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here