রাতের ফুফুর (পিসি) বাড়িতে বেড়াতে আসেন ভাতিজা মনোজ কুমার। তখন ওই নারী বাসায় একাই ছিলেন। ঘরের মধ্যে নিভো নিভো আলো। এ সুযোগে ফুফুকে ঝাপটে ধরে মনোজ। শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে ভাইপো।

গত মঙ্গলবার রাতের ঘটনা। মনোজ কুমার নামে দূর সম্পর্কের এক ভাইপো ওই মহিলার বাড়ি আসেন। বাড়িতে তিনি তখন একাই ছিলেন। অভিযোগ, ঘরের ভিতর যেখানে অন্ধকার ছিল, সেখানে আচমকাই তাঁকে জাপটে ধরে তার শ্লীলতাহানি করার চেষ্টা করে ভাইপো।

ওই নারীর দাবি, কোনোমতে নিজেকে মুক্ত করে উল্টো ওই যুবককেই ধরে ঘরের মধ্যে দড়ি দিয়ে বেঁধে ফেলেন তিনি। তারপর ধারালো অস্ত্র দিয়ে কেটে দেন যুবকের পুরুষাঙ্গ। যুবক কাতরাতে কাতরাতে মাটিতে পড়ে অজ্ঞান হয়ে যায়। তখনই ওই নারী পুলিশকে খবর দেন।

রক্তাক্ত যুবককে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ। তার অবস্থা এখন স্থিতিশীল। মহিলার অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

আইনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে বেড়েই চলেছে ধর্ষণ, শ্লীলতাহানির ঘটনা। এমন অরাজক পরিস্থিতিতে নিজের সম্মান বাঁচাতে ওই নারীর দুঃসাহসিক কাণ্ডের কথা এখন ভারতের উত্তরপ্রদেশের ইটাওয়া জেলার দুর্গাপুর গ্রামের বাসিন্দাদের মুখে মুখে। তার সাহসের তারিফ না করে কেউ থাকতেই পারছেন না।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here