বিষাক্ত সাপকে যে বিশ্বাস করতে নেই গুরুজনেরা এই কথা অনেকআগেই বলে গেছেন। কিন্তু ভারতের মুম্বাইয়ের বেলাপুরের বাসিন্দা সোমনাথ মহাত্র এ কথা মানেননি। বাহাদুরি দেখিয়ে বিষাক্ত গোখরা সাপের মাথায় চুমু খেতে গিয়েছিলেন তিনি। পরিণতিতে সাপের ছোবলেই মৃত্যু হয়েছে তার।

ঘটনাটি নতুন নয়। এটি ঘটেছে গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে। কিন্তু তারপরও সম্প্রতি ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যম আসন্ন বর্ষা মৌসুমে সাপ নিয়ে সচেতনতার অংশ হিসেবে সোমনাথের কথা মনে করিয়ে দিয়েছে।

ভারতের গণমাধ্যম বলছে, গত ১২ বছরে সোমনাথসহ অন্তত ৩১ সাপ উদ্ধারকারী এভাবেই বিষাক্ত সাপের কামড়ে নিহত হয়েছেন। তাই সাপকে বিরক্ত না করে তাকে নিজস্ব প্রকৃতিতেই থাকতে দেওয়া উচিত।

গতবছরের ফেব্রুয়ারিতে মুম্বাইয়ের বেলাপুর এলাকায় একটি গোখরা সাপ উদ্ধার করতে গিয়েছিলেন সোমনাথ। উদ্ধারের পর সাপটিকে তিনি অন্য এক স্থানে নিয়ে যান। তারপর সাপটির মাথায় চুমু খেতে যান। তখন হঠাৎ সাপটি সরে গিয়ে সোমনাথের বুকে ছোবল দেয়।

সোমনাথের এক বন্ধু জানিয়েছিলেন, সোমনাথ পাঁচ দিন ধরে নাবি মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। এর আগে তিনি শতাধিক বিষধর সাপ উদ্ধার করেছেন। তবে সোমনাথের সঙ্গেই এমন ঘটনা প্রথম নয়। এর আগে সাতারা নামের আরেক সাপ উদ্ধারকারী গোখরা সাপকে চুমু খেতে গিয়ে নিহত হন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here