স্টর্মি ড্যানিয়েলস নামে এক পর্নো অভিনেত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে কেলেঙ্কারি কোনোভাবেই যেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পিছু ছাড়ছে না। ট্রাম্প নিজেই স্বীকার করেছেন যে, ওই তারকার মুখ বন্ধ রাখতে তার আইনজীবীর দেওয়া টাকা তিনি শোধ করে দিয়েছেন। কিন্তু তা বৈধভাবেই দেওয়া হয়েছে।

ওই অভিনেত্রী যেন ট্রাম্পের সঙ্গে যৌন সম্পর্কের কথা গোপন রাখেন সে জন্য ২০১৬ সালে তার আইনজীবী মাইকেল কোয়েন ১ লাখ ৩০ হাজার ডলার দিয়েছিলেন বলে জানুয়ারিতে একটি পত্রিকায় খবর বের হয়। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প অবশ্য তখন দাবি করেন এরকম লেনদেনের কথা তিনি জানেনই না।

এর আগে মার্কিন সংবাদমাধ্যমে নিউইয়র্কের সাবেক মেয়র রুডি জুলিয়ানি প্রকাশ করে দেন যে, ওই অভিনেত্রীর মুখ বন্ধ রাখতে ট্রাম্পের আইনজীবী তাকে যে টাকা দিয়েছিলেন তা ট্রাম্প শোধ করে দিয়েছেন। এর পরই ঘটনা নতুন মোড় নেয়।

কিছুদিন ধরে এ প্রশ্ন উঠছিল যে, স্টর্মি ড্যানিয়েলসকে আইনজীবী কোয়েনের দেওয়া টাকাটা ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারের তহবিল থেকে গিয়েছিল কিনা। এ ব্যাপারে ফক্স নিউজ টিভিতে প্রেসিডেন্টেরই আইনজীবী দলের এক গুরুত্বপূর্ণ সদস্য রুডি জুলিয়ানি ব্যাখ্যা দিতে আসেন। তিনি বলেন, ওই টাকা প্রেসিডেন্টের নির্বাচনী প্রচারণা তহবিলের টাকা ছিল না। ফলে এ ক্ষেত্রে প্রচারণার তহবিল তসরুপের কোনো ঘটনা ঘটেনি।

জানুয়ারিতে ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল পত্রিকায় খবর বের হয়, ২০০৬ সাল পর্যন্ত ওই অভিনেত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক রেখেছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here