মাইক্রো ব্লগিং সাইট টুইটার তাদের ৩৩ কোটি ব্যবহারকারীকে নিজেদের পাসওয়ার্ড বদলে ফেলার পরামর্শ দিয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তাদের নিজস্ব একটি ত্রুটি ধরা পড়েছে। তবে অভ্যন্তরীণ তদন্তে কারও পাসওয়ার্ড চুরি বা বেহাত হওয়ার কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি বলে আশ্বস্ত করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

তারপরও সাবধানতা অবলম্বনের জন্যই সব ব্যবহারকারীকে পাসওয়ার্ড বদলে ফেলার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

তবে ঠিক কতগুলো পাসওয়ার্ড ঝুঁকিতে পড়েছে সে বিষয়ে কিছু বলেনি টুইটার। তবে ধারণা করা হচ্ছে এ সংখ্যা একেবারে কম নয় এবং টুইটার নেটওয়ার্কে কয়েক মাস ধরেই এ ত্রুটি চলছিল। কয়েক সপ্তাহ আগে এ ত্রুটির বিষয়ে জানতে পারে টুইটার।

ত্রুটির বিষয়ে টুইটারে ব্লগে লেখা হয়েছে, যখন কোনো ব্যবহারকারী তার পাসওয়ার্ড দিয়ে টুইটারে লগ ইন করেন তখন ওই পাসওয়ার্ড টুইটার কর্মীদের কাছ অন্যভাবে উপস্থাপিত হয়; যাতে তারা কখনই প্রকৃত পাসওয়ার্ড দেখতে বা বুঝতে না পারেন। এ বিষয়টাকে হ্যাশিং বলা হয়।

আর টুইটার যে ত্রুটি দেখতে পেয়েছে, সেখানে হ্যাশিং ঠিক মতো কাজ করছিল না। অর্থাৎ ব্যবহারকারীর পাসওয়ার্ড ওইভাবেই আভ্যন্তরীণ একটা লগে লেখা হচ্ছিল।

টুইটারের প্রধান নির্বাহী জ্যাক ডরসেও এক টুইটে বিষয়টির কথা জানিয়েছেন। ওই ত্রুটি ঠিক করে ফেলা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশও করেছে টুইটার। ব্যবহারকারীদের পাসওয়ার্ড বদলে ফেলার পাশপাশি দু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন চালুর পরামর্শও দেয়া হয়েছে টুইটারের পক্ষ থেকে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here