ইয়েমেনের প্রধানমন্ত্রী আহমেদ ওবায়েদ বিন দাঘরসহ ১০ মন্ত্রীকে অবরুদ্ধ করে রেখেছে আরব আমিরাতের সৈন্যরা। শুক্রবার থেকে দেশটির গুরুত্বপূর্ণ দ্বীপ সোকোত্রোয় অবরুদ্ধ হয়ে আছেন তারা।

আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার আমিরাতের সৈন্যরা সোকোত্রা দ্বীপে পৌঁছানোর দিনই কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ দ্বীপটিতে সফরে যান প্রধানমন্ত্রী আহমেদ ওবায়েদ বিন দাঘর। সেখানে তাকে স্বাগত জানান হাজার হাজার দ্বীপবাসী। দ্বীপে আমিরাতে উপস্থিতির নিন্দা জানিয়ে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতিপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট আবদ-রাবু মনসুর আল হাদী ও অবিভক্ত ইয়েমেনের সমর্থনে স্লোগান দেয়।

কিন্তু কৌশলগতভাবে দ্বীপটির দখল নেওয়ার পর সেখান থেকে প্রধানমন্ত্রী আহমেদ ওবায়েদ বিন দাঘরসহ দশ মন্ত্রীকে দ্বীপ ত্যাগে বাধা দেওয়া হয়েছে। ইয়েমেনের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরাকে বলেছেন, বৃহস্পতিবার দ্বীপটিতে সফরে যাওয়ার পর শুক্রবার বের হতে চাইলেও কাতারের প্রধানমন্ত্রীকে বের হতে দেওয়া হয়নি।

আর তুরস্কের আনাদোলু এজেন্সিকে ইয়েমেনের যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রী নায়েফ আল বাকরি বলেছেন, ইয়েমেনি জনগণ তাদের ভূমি রক্ষা করবে। দ্বীপ এবং উপকূলের এক বিন্দু বালু সমর্পণ করা হবে না। সেখানে মধ্যস্ততা করতে শুক্রবারই কর্মকর্তাদের পাঠিয়েছে সৌদি আরব।

সোমালিল্যান্ড উপকূলের কাছাকাছি অবস্থিত সোকোত্রা দ্বীপ ইউনেস্কোর স্বীকৃত বিশ্ব ঐতিহ্য। প্রায় ৬০ হাজার মানুষের বসতির দ্বীপটিতে যুদ্ধ বিমান ও বড় সামরিক যান চলাচলের মতো তিন হাজার মিটার দীর্ঘ রানওয়ে রয়েছে। সোমালিল্যান্ডে একটি বাণিজ্যিক বন্দর স্থাপনে বিপুল বিনিয়োগের পর সম্প্রতি আমিরাত দাবি করে থাকে ৯৯ বছরের জন্য দ্বীপটি লিজ নিয়েছে তারা। সেখানে সামরিক কার্যক্রম চালানোর ঘোষণা দেয় আমিরাত।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here