রাজধানীর মতিঝিল এনসিসি ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় থেকে মহিবুল (২২) নামের এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে ওই ব্যাংকের তৃতীয় তলা থেকে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) মর্গে পাঠানো হয়।

মহিবুল ওই ব্যাংকে আউট সোর্সিংয়ে পাম্প অপারেটর হিসেবে কর্মরত ছিলেন। পুলিশ ও স্বজনরা বলছেন, প্রেমঘটিত কারণে মহিবুল গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করে থাকতে পারে।

মহিবুলের চাচা এম এ হোসাইন জুয়েল জানান, মহিবুল চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তি উপজেলার সুচিপাড়া গ্রামের আবুল খায়েরের ছেলে। বর্তমানে রাজধানীর ণি মুগার ১৩৫ নম্বর বাসায় পরিবারসহ ভাড়া থাকতেন। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির অনার্স দ্বিতীয় সেমিস্টারের ছাত্র ছিলেন। পাশাপাশি এনসিসি ব্যাংকে পার্টটাইম জব করতেন।

জুয়েল আরো জানান, ৫-৬ বছর ধরে এক মেয়ের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। সম্প্রতি ওই মেয়ের বিয়ে ঠিক হওয়ায় হতাশা থেকে মহিবুল গলায় ফাঁস নিতে পারে বলে ধারণা তাদের।

মতিঝিল থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) গোলাম রব্বানী জানান, পানির পাইপের সঙ্গে বিদ্যুতের তার দিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো ঝুলন্ত অবস্থায় মহিবুলের লাশ উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে প্রেমঘটিত কোনো কারণে তিনি গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। অন্য কোনো কারণ আছে কিনা তা বিস্তারিত তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here