আজিমপুর থেকে বাসা পরিবর্তনের কাজে নাখালপাড়া যাওয়ার পথে একটি ট্যাক্সি ক্যাবের ধাক্কায় গুরুতর আহত আব্দুল্লাহ আল মামুন মারা গেছেন। শনিবার সকালে রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

তিনি বগুড়ার সারিয়াকান্দি উপজেলার ছাগলনাইয়া গ্রামের জিল্লার রহমানের ছেলে।

মামুনের বন্ধু সাংবাদিক ওবায়দুর রহমান জানান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাব বিজ্ঞান ও তথ্য ব্যবস্থাপনায় স্নাতকোত্তর করে মামুন আলফা ক্যাপিটাল নামে একটি প্রতিষ্ঠানে সহকারী ব্যবস্থাপক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। শুক্রবার রাতে বাসা পরিবর্তনের কাজে সাইকেলযোগে আজিমপুর থেকে নাখালপাড়া যাওয়ার পথে পুরাতন বিমানবন্দর এলাকায় যাত্রী ছাউনির সামনে একটি ট্যাক্সি ক্যাব তাকে ধাক্কা দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শনিবার সকালে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

এদিকে দুর্ঘটনার পর ঘাতক টেক্সিক্যাবসহ চালককে আটক করে মিলিটারি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে স্থানীয় বাসিন্দারা। মামুনের লাশ অ্যাম্বুলেন্সে করে গ্রামের বাড়িতে নেয়া হচ্ছে।

ব্যক্তিগত জীবনে তিনি সাত মাস বয়সী ছেলে সন্তানের জনক। তার একমাত্র ছোটভাই পড়াশুনা করছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে। পরিবারে একমাত্র কর্মক্ষম মামুনকে হারিয়ে দিশাহারা পড়েছে তার পরিবারের সদস্যরা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here