দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের জন্য এটা ছিল মরণ-বাঁচন লড়াই। এই ম্যাচটা হারলে চলতি আইপিএল টুর্নামেন্ট থেকে তাদের ছিটকে যেতে হত। এই অসম্ভব চাপের কাছে নতি স্বীকার করল শ্রেয়স ব্রিগেড। হায়দরাবাদের কাছে সাত উইকেটে হারালো। এখন শুধুমাত্র অঙ্কের কাটাকুটি খেলায় আশা বেঁচে থাকল দিল্লির।

কেন উইলিয়ামসনের ‘অধিনায়কোচিত’ ব্যাটিং এবং শেষের ওভারের ধামাকাতে ইউসুফ দিল্লি ডেয়ারডেভিলসদের হারালো সানরাইজার্স হায়দরাবাদ৷ এই জয়ের ফলে পয়েন্ট টেবলে একনম্বরে উঠে এল কেন উইলিয়ামসনব্রিগেড৷

শনিবার প্রথম ব্যাট করে সানরাইজার্সদের সামনে ১৬৪ রানের টার্গেট রাখে ডেয়ারডেভিলস৷ এক বল বাকি থাকতেই ৭ উইকেটে ম্যাচ জিতে নিল সানরাইজার্স৷

১৬৪ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে হায়দরাবাদকে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যায় দুই ওপেনার ধাওয়ান ও অ্যালেক্স হেলস। এই দুজনের জুটি ভঙে দলীয় ৭৬ রানে ৩১ বলে ৪৫ রান করে হেলসের বিদায়ে। এক ওভার পরই উইকেট বিলিয়ে দিয়ে আসে ধাওয়ান।

শেষ দিকে হায়দরাবাদকে টেনে তুলেন ইউসুফ পাঠান। তার ১২ বলে ২৭ রানের ঝোড়ো ইনিংসে ভর করে আসরে নিজেদের সপ্তম জয় পায় হায়দরাবাদ।

মোস্তাফিজের মুম্বাই হায়দরাবাদের জয়ে সবচেয়ে বেশি উপকৃত হয়েছে । কেননা দিল্লি হেরে যাওয়ায় প্লে অফে খেলার আশা কিছুটা হলেও বেঁচে থাকল মুম্বাইয়েরও। দিল্লি যেখানে ১০ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের সপ্তম স্থানে নেমে গেল। সেখানে ৯ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে রান রেটে এগিয়ে থেকে মুম্বাইয়ের অবস্থান এখন টেবিলের পাঁচে।মুম্বাইয়ের সামনে সুযোগ আছে প্লে-অফে খেলার।

ম্যাচটিতে ৪ ওভারে ২৩ রান খরচায় ২ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরা হন রশিদ খান। ৪ ওভারে ৩৪ রান দিয়ে কোন উইকেট পায়নি সাকিব।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here