তিনি ঢাকার বহু বিখ্যাত মরণচাঁদের মিষ্টি খেয়েছেন। নাটোরের কাঁচাগোল্লার স্বাদ জানেন। কিন্তু মিহিদানা-সীতাভোগ কি খেয়েছেন? উত্তর অজানা। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে স্বাগত জানাতে এভাবেই মিষ্টি নিয়ে প্রস্তুত হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমানের কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

শেখ হাসিনা তথা বিশ্বের অন্যতম প্রভাবশালী এই নারী রাষ্ট্রপ্রধানকে বিশ্ববিদ্যালয়টি সম্মানসূচক ডি লিট উপাধিও প্রদান করবে। এছাড়া বাঙালি প্রধানমন্ত্রীকে কাছে থেকে দেখার জন্যও উদগ্রিব হয়ে আছে বর্ধমানবাসী।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সাধন চক্রবর্তী জানিয়েছেন, সীতাভোগ-মিহিদানা বর্ধমানের গৌরব। বাংলার গরিমা। আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন বাঙালি প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানাতে আমরা প্রস্তুত হচ্ছি। অভ্যর্থনা কমিটির সঙ্গে আরও কয়েকটি ব্যাপারে আলোচনা চলছে।

বাংলাদেশের যেমন পোড়াবাড়ির চমচম, কুমিল্লার রসমালাই বিখ্যাত। তেমনই পশ্চিমবঙ্গের নজরকাড়া মিষ্টান্ন হল সীতাভোগ-মিহিদানা। সম্প্রতি প্রশাসনিক কারণে বর্ধমানে জেলা ভাগ হয়েছে। কিন্তু মিষ্টি সৌরভের ভাগ হয়নি। তাই পশ্চিম বর্ধমানবাসীর কাছেও বিশেষ প্রিয় এই মিষ্টান্ন।

আগামী ২৫ মে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পশ্চিমবঙ্গে যাচ্ছেন। এই দিনই তিনি শান্তিনিকেতনে গিয়ে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে নির্মিত ‘বাংলাদেশ ভবন’ উদ্বোধন করবেন। কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের শান্তিনিকেতনে এই ভবন নির্মাণ করেছে বাংলাদেশ সরকার। অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়েরও উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।

২৬ মে কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠান। এই দিন পশ্চিম বর্ধমানের আসানসোলে যাবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানেই তাকে ডি লিট প্রদান করা হবে।

আসানসোলের কাছেই চুরুলিয়াতেই জন্ম আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের। পাকিস্তান থেকে ছিন্ন হয়ে ১৯৭১ সালে তীব্র রক্তাক্ত মুক্তিযুদ্ধের পর গঠিত হয় বাংলাদেশ। স্বাধীনতালাভের পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অনুরোধে নজরুল ও তার স্বজনরা চলে এসেছিলেন বাংলাদেশে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়েই আছে কবির সমাধি। চুরুলিয়াতে কবির সমাধি সৌধ তৈরি করা হয়েছে। সফরে এসে নজরুলের জন্ম ভিটে দেখতে যাবেন শেখ হাসিনা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here