বাবার বিরুদ্ধে প্রাণনাশের হুমকিসহ একাধিক অভিযোগে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের এক ছাত্রী। গত শনিবার বিকেলে রাজধানীর চকবাজার থানায় এই জিডি করেন (নম্বর-৯৬) তিনি।

ওই ছাত্রীর অভিযোগ, তার বাবা নেশাগ্রস্ত। মান-সম্মানের ভয়ে এতদিন এসব প্রকাশ করেননি তারা। কিন্তু এখন মেয়েটির মা অসুস্থ। তাকে ভালোভাবে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে না। তাদের তিনবোনকে মেরে বাড়ি থেকে বের করে দেয়ার পায়তারা চলছে। তাদের মারধরও করা হচ্ছে। এখন তারা জীবনের হুমকিতে রয়েছে। তাই নিরাপত্তা, থাকার জায়গা ও লেখাপড়ার খরচের দাবিতে বাবার বিরুদ্ধে জিডি করতে বাধ্য হয়েছেন তারা।

তবে ওই ছাত্রীর বাবা মেয়ের অভিযোগ ভিত্তিহীন দাবি করে বলেন, ‘তিনি সন্তানদের খুব ভালোবাসেন। হজে যাওয়ার আগে তিনি নেশা করতেন। কিন্তু এখন তিনি নিয়মিত নামাজ পড়েন। স্ত্রীর পরিবারের লোকজন সন্তানদের দিয়ে তাকে বিপদে ফেলতে চাইছে। সব মিলিয়ে তিনি নিজেও এখন নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন।’

চকবাজার থানার ওসি শামীম অর রশীদ তালুকদার বলেন, ‘অভিযোগের বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। অভিযোগের সত্যতা পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

রবিবার বিকেলে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ওই ছাত্রী বলেন, ‘আগে আমাদের টাকা-পয়সা, বাড়ি-গাড়ি সব ছিল। তখন আমার বাবা অনেক টাকা উড়াত। বিভিন্ন রিসোর্টে রোজ নতুন নতুন মেয়ে নিয়ে টাকা ওড়াতেন তিনি। এখন সব শেষ। আমাদের মাত্র একটা ফ্ল্যাট আছে। এই অবস্থায় আমার বাবা, চাচা-চাচি চাচ্ছেন, আমাদের তিনবোনকে ফ্ল্যাট থেকে বের করে দিয়ে তারা এটি দখল করবে।’

ওই ছাত্রী আরও বলেন, ‘গত পহেলা মে চাচা-চাচি আমাদের মেরে ঘর থেকে বের করে দেয়। অনেক কষ্টে এখন আমরা ওই বাসাতেই আছি। আমাদের তিনবোনকে একটি রুমে রাখা হয়েছে। কিন্তু রুমটির দরজা নেই। ফলে আমরা একবোন ঘুমালে অন্য দুই বোন জেগে পাহারা দেই। এই অবস্থায় মামার পরিবারের সঙ্গে কথা বলে থানায় জিডি করেছি।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here