সম্প্রতি চিত্রনায়িকা নুসরাত ফারিয়া অভিনীত মিউজিক ভিভিও ‘পটাকা’ নিয়ে তুমুল আলোচনা সমালোচনা হচ্ছে। মিউজিক ভিডিওটি ইউটিউবে প্রকাশের পরপরই লাইকের চেয়ে তাতে ডিসলাইকের ঝড় বয়ে যায়। অনেকেই ফারিয়ার বিরুদ্ধে অশ্লীলতারও অভিযোগ আনেন। এ নিয়ে এতদিন মুখ না খুললেও সম্প্রতি কলকাতায় একটি কাজে যাওয়ার সময় মন খুলে কথা বলেছেন ফারিয়া।

এই সমালোচনা কিভাবে দেখছেন জানতে চাইলে ফারিয়া বলেন, ডিসলাইক কারা দিচ্ছে সেটা আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ না। আমার গানটি লাখ লাখ মানুষ দেখেছে এবং এখনো দেখছে। একজন শিল্পী হিসেবে আমি যা করেছি, তা শ্রোতাদের জন্যই করা। তবে খারাপ লাগার জায়গা হলো, নেতিবাচক কথার পাশাপাশি গানটি নিয়ে অনেক ভালো প্রতিক্রিয়া এলেও সেগুলো এড়িয়ে যাওয়া হচ্ছে।

ফারিয়া বলেন, যেমন অনেক শিল্পী আমার গান প্রকাশের পর শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। তা কোথাও কেউ বলছে না। তাছাড়া আজকাল হ্যাক করেও ডিসলাইকের সংখ্যা বাড়ানো সম্ভব। তাই আমি এ বিষয়টি নিয়ে ভাবছি না।

তাহলে কি তার শত্রুপক্ষের কেউ এটা করছে বলে মনে করেন ফারিয়া? এর জবাবে এই অভিনেত্রী বলেন, এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য আর করতে চাই না। ব্যক্তিগতভাবে অনেক কিছু মাথায় রেখেই গানটি করেছি। কাউকে আঘাত করা বা বিতর্ক ছড়াবে, এমন কোনো সুযোগ রাখিনি ওতে। খুবই সাধারণভাবে গানটি গাওয়ার চেষ্টা করেছি, নেচেছি ও বিনোদন দেয়ার চেষ্টা করেছি। আমাকে কষ্ট দিয়েছে যে, ঠিক আছে খারাপ করতেই পারি, কিন্তু ভালো-মন্দের উপযুক্ত ব্যাখ্যাটা তো করা উচিত।

গানটি আসলে কি বিষয় নিয়ে করা, এমন প্রশ্নের জবাবে ফারিয়া বলেন, গানটিতে খুবই সাধারণভাবে নারীর ক্ষমতায়ন নিয়ে কথা বলেছি। তুমি আমার হৃদয় ভেঙে দেওয়ার পরও আমি গুটিয়ে যাইনি। এটাই তো পটাকার মানে। এর বাইরে কাউকে উসকানি তো দিইনি। এ গানটি তো আমি একা বানাইনি, সম্ভবও নয়। এটা খুবই সাধারণ একটি গান, ক্লাসিক্যাল গান নয়। তাছাড়া আমি নিজে পেশাদার সংগীতশিল্পীও নই। আমি শুধু কাজটিকে একটু ভিন্নভাবে দর্শক-শ্রোতার কাছে নিয়ে যেতে চেয়েছিলাম। এর বেশি কিছু না।

‘পটাকা’ লিখেছেন রাকিব হাসান রাহুল, সংগীত পরিচালনা করেছেন প্রীতম হাসান।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here