জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় কারাগারে থাকা বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে দেওয়া হাইকোর্টের জামিনের বিরুদ্ধে আপিল শুনানি আগামীকাল পর্যন্ত মুলতবি করেছেন আদালত। প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বেঞ্চে মঙ্গলবার বেলা ১ পর্যন্ত এ বিষয়ে শুনানি চলার পর শুনানি মুলতবি করা হয়।

এর আগে সকাল ৯টা ৩৫ মিনিটে খালেদা জিয়ার জামিন বিষয়ে আপিলের শুনানি শুরু হয়। আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট এজে মোহাম্মদ আলী। দুদকের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান। এছাড়া রাষ্ট্রপক্ষে উপস্থিত আছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

শুনানিতে মাহবুবে আলম মামলার নথি থেকে পাঠ করে আদালতকে বলেন, ‘জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলা বিচারিক আদালতে চলাকালে ৬৭টি তারিখের মধ্যে খালেদা জিয়া মাত্র আট দিন হাজির হয়েছিলেন। আবার হাজির হলেও বারবার সময় আবেদন করেছেন। মামলার পাঁচ বছর পর চার্জ গঠন হয়। এরপর তারা কয়েকবার হাইকোর্টে মামলা করে সময় ব্যাহত করেন।’

এ সময় খালেদা জিয়ার আইনজীবী জয়নুল আবেদীন অ্যাটর্নি জেনারেলের বক্তব্যের মাঝে আপত্তি তুলে ধরে বলেন, ‘তিনি রাষ্ট্রের অ্যাটর্নি জেনারেল। তিনি এসব কী পড়ছেন? এ পর্যায়ে এজলাসে উপস্থিত বিএনপি সমর্থিত আইনজীবীরা উচ্চ স্বরে ইয়েস…ইয়েস বলে জয়নুল আবেদীনকে সমর্থন জানান এবং তারা হৈচৈ শুরু করেন।

তখন অ্যাটর্নি জেনারেল বিচারপতিদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, ‘তারা এমন করলে কিভাবে শুনানি করবো? তখন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেন, আপনারা এমন করলে কিন্তু শুনানি করতে পারবো না।

পরে আদালতের পরিস্থিতি শান্ত হলে অ্যাটর্নি জেনারেল পুনরায় শুনানি শুরু করেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here