গ্রীষ্মের শুরু থেকে প্রায় প্রতিদিনই দেশের কোথাও না কোথাও হান দিচ্ছে কালবৈশাখী, সঙ্গে বজ্রপাত। এতে ঝরছে অনেক প্রাণ। বুধবারও মানিকগঞ্জে স্কুল চলাকালে বজ্রাঘাতে প্রাণ হারিয়েছে স্কুলছাত্র। হবিগঞ্জের ছয় কৃষি শ্রমিকসহ ১৫ জেলায় মারা গেছেন ২৭ জন। আহতও হয়েছেন বেশ কয়েকজন।

হবিগঞ্জ : জেলার পৃথক স্থানে বজ্রপাতে ৬ জন ধানকাটা শ্রমিক প্রাণ হারিয়েছেন। বুধবার দুপুরে বিভিন্ন স্থানে হঠাৎ বজ্রপাতসহ কালবৈশাখী ঝড় শুরু হয়। এ সময় হাওরে ধান কাটতে গিয়ে মারা যান ৬ শ্রমিক। এর মধ্যে বানিয়াচংয়ের মাকালকা হাওরে স্বপন দাশ, একই উপজেলার নূরপুর হাওরে জয়নাল উদ্দিন, নবীগঞ্জ উপজেলার বৈলাকীপদুর গ্রামের হাওরে নারায়ণ পাল ও আমড়াখাই হাওরে আবদুল তালিব, লাখাই উপজেলার তেঘরিয়া হাওরে সফি মিয়া ও মাধবপদুর উপজেলার পিয়াইম হাওরে জোহর লাল সরকার মারা যান। আহত হয়েছেন আরও ৬ জন।

সুনামগঞ্জ : পৃথক বজ্রপাতের ঘটনায় জেলায় দুই কৃষক মারা গেছেন। দুপুরে জেলার শাল্লা উপজেলার কালীকদুটা হাওরে আলমগীর হোসেন (২৩) এবং ধর্মপাশার কাইল্যানী হাওরে জুয়েল মিয়ার মৃত্যু হয়।

নীলফামারী : জলঢাকায় সকালে বজ্রপাতে নারীসহ দুজন মারা গেছেন। তারা হলেন উপজেলার কাঁঠালী ইউনিয়নের উত্তর শেীবাই গ্রামের নূর আমিন (৪০) ও বালাগ্রাম ইউনিয়নের শালনগ্রাম ডুগডুগির আসমা বেওয়া (৫৫)।

রাজশাহী : তানোরে বজ্রাঘাতে কলেজছাত্রসহ দুজনের মৃত্যু হয়েছে। সকালে জেলার তানোর উপজেলার দদুবইলের সোহাগ আলী (১৮) ও বাতাসপদুরে আনসার আলী (৪০) মারা গেছেন। এ ঘটনায় আরও দদুই কৃষক আহত হয়েছেন। তারে মোহনপদুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে।

মানিকগঞ্জ : দৌলতপদুরে বজ্রাঘাতে তালদুকনগর উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র সাইফদুল ইসলাম অন্তরের (১২) মৃত্যু হয়। আহত হয়েছে আরও ৮ শিক্ষার্থী। একই উপজেলায় বজ্রপাতে মারা গেছেন বাঁচামারা ইউনিয়নের হাসাদিয়া গ্রামের কৃষক ইয়াকদুব আলী শেখ (৪৮)।

কিশোরগঞ্জ : পৃথক বজ্রপাতে নারীসহ দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। তারা হলেন- নিকলী উপজেলার ছাতিরচর ইউনিয়নের পরিষপাড়ার শাহ জালাল (২৫) ও পাকদুন্দিয়া উপজেলার সদুখিয়া ইউনিয়নের আশদুতিয়া এলাকার দিপালী রানী বর্মণ (৩৮)।

গাইবান্ধা : ফদুলছড়ি উপজেলার উদাখালী ইউনিয়নের পূর্ব ছালদুয়া গ্রামে সকালে বজ্রপাতে মহর আলী (৩৫) নামে এক কৃষকের মৃত্যদু হয়েছে। তিনি বাড়ির পাশে বিলের জমিতে কয়েকজন কৃষকের সঙ্গে ধান কাটছিলেন।

জামালপুর : দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার চর আমখাওয়া ইউনিয়নের মৌলভীর চরে সকালে বজ্রপাতে হাবিবদুর রহমান (৫৬) নামের এক কৃষক মারা গেছেন। তিনি বাড়ির কাছেই ধান কাটছিলেন।

সিলেট : গোয়াইনঘাটে বজ্রপাতে নূরদুল হক নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তিনি কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার মোরারগাঁও এলাকার চন্ডু মিয়ার ছেলে। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান খালেদুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নারায়ণগঞ্জ : সোনারগাঁও উপজেলার জামপদুর ইউনিয়নের তিলাব গ্রামে বজ্রপাতে কদুলফি আক্তার (৮) নামে এক স্কুলছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। কদুলফি ওই গ্রামের শাহ কামালের মেয়ে।

কুমিল্লা : মদুরাদনগরে বজ্রপাতে কিশোরসহ দুই কৃষি শ্রমিক মৃত্যু হয়েছে। শেষ বিকালে উপজেলার যাত্রাপুর গ্রামের দক্ষিণপাড়া খেলার মাঠ সংলগ্ন বোরো ধানের মাঠে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলো- যাত্রাপদুর পূর্বপাড়া গ্রামের সেলিম মিয়া (১৮) ও ইমন মিয়া (১৪)।

নরসিংদী : মনোহরদীতে পৃথক বজ্রপাতে বড়চাপা ইউনিয়নের চরতারাকান্দী গ্রামের কাজল মিয়ার স্ত্রী পিয়ারা বেগমের (৪০) মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে লেবদুতলা ইউনিয়নের তারাকান্দী উচ্চ বিদ্যালয় ও তারাকান্দী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১৪ ছাত্রী।

চাঁদপুর : বজ্রাঘাতে মতলব দক্ষিণ উপজেলায় কালিাস (৬০) নামের এক জেলের মৃত্যু হয়েছে। তিনি নায়েরগাঁও দক্ষিণ ইউনিয়নের খিরিপদুর গ্রামের মৃত গঙ্গাচর দাসের ছেলে। এ ছাড়া কচদুয়ায় ধান কাটতে গিয়ে মারা গেছে অষ্টম শ্রেণির স্কুলছাত্র মো. জামাল হোসেন (১৪)।

সিরাজগঞ্জ : কাজিপদুরে মারা গেছেন সমতুল্লাহ (৫০) নামের এক কৃষক। দগ্ধ হয়েছে শাকিল মিয়া (১৫) নামে এক স্কুলছাত্র।

ময়মনসিংহ : সদর উপজেলায় বজ্রপাতে আলাল উদ্দিন নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া পৃথক স্থানে বজ্রপাতে দগ্ধ হয়েছেন আরও ১২ জন।

বগুড়া : সোনাতলা উপজেলার মহেশপাড়া উম্মে বেলিজা মডেল মাদ্রাসায় বজ্রপাতে ৫ শিশু শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। মাদ্রাসার পরিচালক আক্তারদুল ইসলাম জানান, বুধবার সকাল পৌনে ১০টার দিকে শিক্ষার্থীরা শ্রেণিকক্ষের মধ্যে জানালা খুলে বসে ছিল। এ সময় বজ্রপাতে ৫ শিক্ষার্থী আহত হয়।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here