স্টর্মি ড্যানিয়েলসের সঙ্গে সম্পর্ক সংক্রান্ত খবর এখনও মার্কিন সংবাদমাধ্যমের শিরোনামে আসছে। তার মধ্যেই আরও একজন নারীর জড়াল তার বন্ধু বারবারা মুরের।

জেনিসনের দাবি, মার্কিন প্রেসিডেন্টের অতীতের প্রেমিকা মার্লা মেপলস তখন গর্ভবতী। সেই সময়ে মার্লাকে লুকিয়ে মুরের সঙ্গে যৌনতায় মত্ত হন ট্রাম্প। শুধু তাই নয়, সেই সব ঘটনার সাক্ষী ছিলেন জেনিসন নিজে। জেনিসন আরও জানাচ্ছেন, তিনি ও মুর ১৯৯৩ সালে একটি শুটের কাজে নিউ ইয়র্কে এসেছিলেন। সেই সময় নিজের বিলাসবহুল পেন্টহাউসে নিমন্ত্রণ করেন ট্রাম্প।

জেনিসন বলেছেন, ‘সেখানে ট্রাম্পের ঘরে বিছানার ওপরে দীর্ঘক্ষণ মদ্যপানের পরে বসে গল্প করছিলাম। তারপরেই যৌনতায় লিপ্ত হন ট্রাম্প ও মুর। তখন পাশে ছিলেন জেনিসন। কিন্তু ঘরে তৃতীয় কারও উপস্থিতি নিয়ে কোনও অসুবিধাই ছিল না ট্রাম্প ও মুরের।

জেনিসন বলছেন, এই ঘটনার আগে পর্যন্ত ট্রাম্পকে আমার খাঁটি ভদ্রলোক বলে মনে হত। তারপর থেকেই নাকি মুরের আচরণে কিছু পরিবর্তন আসে। তিনি নাকি ট্রাম্পকে ‘‌বয়ফ্রেন্ড’‌ বলে সম্বোধন করতে শুরু করেন। জেনিসন সতর্কও করেছিলেন মুরকে। বারবার মনেও করিয়ে দিতেন, ট্রাম্পের অন্য প্রেমিকা রয়েছেন, যিনি সন্তানসম্ভবা।

জেনিসন বলেন, কিন্তু মুরের চোখে তখন ট্রাম্পের অর্থের মোহ। রোজ ওকে দামি উপহার দিতেন ট্রাম্প। আমি মুরকে হিংসে করিনি কখনও। কারণ ও আমার বন্ধু ছিল। কিন্তু একজন গর্ভবতী মহিলার প্রেমিকের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হওয়াটা আমার কাছে অত্যন্ত অন্যায় বলে মনে হয়েছিল। কিছুদিন পরে কন্যা টিফানির জন্ম দেন ট্রাম্পের প্রেমিকা মার্লা। তখন আচমকাই না জানিয়ে মুরের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে যৌনকেচ্ছার কথা ফাঁস করলেও প্রশাসক ট্রাম্পের প্রশংসাই করেন জেনিসন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here