একটি ওয়েব সিরিজে অভিনয়ের শর্ত হিসেবে জনপ্রিয় ভারতীয় অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্রকে মশারির মতো শাড়ি পরার প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল। দুপুর ঠাকুরপো’র প্রসঙ্গ নিয়ে কথা বলতে গিয়ে দৈনিক আনন্দ বাজার পত্রিকাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি একথা জানান।

নির্মাতারা বলেছেন, শ্রীলেখা ওজন কমাননি বলে তারা তাকে বাদ দিয়েছেন। তবে অভিনেত্রী বলেছেন, কুরুচিপূর্ণ কনটেন্টের কারণে কাজটা করেননি তিনি।

জনপ্রিয় এ অভিনেত্রী বলেন, আমি তো এই প্রথম বার শুনছি যে, ওজনের জন্য আমাকে বাদ দেওয়া হয়েছে! ইন্ডাস্ট্রিতে তো সকলেই জানে, আমি মোটাসোটা। সেই হোমওয়র্কটা করে নিয়ে ওদের আসা উচিত ছিল!

তিনি বলেন, আমাকে লুকটেস্টে যে শাড়িটা পরতে দেয়া হয়েছিল, সেটা একেবারে মশারির মতো! এ রকম স্লিজ শো আমি কেন করব? আর ওদের বাঙালি বউদি চাই, না কি ভোজপুরি বউদি চাই- সে ব্যাপারেও একটু পরিষ্কার থাকা উচিত ছিল।

শ্রীলেখা বলেন, আমার কাছে বড় ব্যানার বা ছোট ব্যানার ম্যাটার করে না। পুরো ছবিটা ভাল কি না, সেটা আমার কাছে ম্যাটার করে। শুধু আমার চরিত্রটা নয়। তাই পোস্টারে কত বড় করে আমার মুখ গেল, ছবির বাজেটের কতটা আমার জন্য রাখা হল- এগুলো নিয়ে আমি ভাবি না। আমি ব্যবসায়ী হতে পারিনি।

কাজের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমি শুধু ভাল কাজটা করতে চাই। কখনও কখনও যে অবসাদ-হতাশা আসে না, তা নয়। তবে আমার দ্বারা কারও ক্ষতি হয়নি কোনও দিন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here