মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার আসামি মেজর (অব.) ওয়াহিদুল হকের সঙ্গে বৈঠকের অভিযোগে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজকে সাময়িকভাবে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। চিফ প্রসিকিউটর গোলাম আরিফ টিপু বিবিসিকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গোলাম আরিফ টিপু জানিয়েছেন, তুরিন আফরোজের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ ওঠার পর এখন সেটির তদন্ত চলছে। তাই আপাতত তাকে মামলা পরিচালনা না করার জন্য বলা হয়েছে আর মামলার সব নথিপত্র প্রসিকিউশনে জমা দেয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

তুরিন আফরোজের বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের অভিযোগ, গত বছরের ১৮ই নভেম্বর তিনি মানবতা বিরোধী অপরাধের মামলায় জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থা (এনএসআই) এবং পাসপোর্ট অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক মেজর (অব) ওয়াহিদুল হকের সঙ্গে টেলিফোন করে গোপনে বৈঠক করতে চান। এর পরদিন ১৯শে নভেম্বর তিনি গুলশানের একটি রেঁস্তোরায় ওয়াহিদুল হক, তার স্ত্রী ও একজন স্বজনের সঙ্গে বৈঠক করেন। এ সময় তিনি আসামীর কাছে ঘুষও চেয়েছেন।

সেই বৈঠকের কথোপকথন গোপনে রেকর্ড করেন ওয়াহিদুল হক।

গত ২৪শে এপ্রিল মোহাম্মদ ওয়াহিদুল হককে গ্রেফতার করা হয়। তখন তার মোবাইল ফোনে সেই রেকর্ড পায় পুলিশ। তাদের কাছ থেকে তদন্ত সংস্থা সেটি জানতে পারে বলে জানিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল একজন প্রসিকিউটর।

সেই বৈঠকের তথ্যপ্রমাণ ও অডিও রেকর্ড চীফ প্রকিকিউটরের কাছে দেওয়ার পর প্রথমে এই মামলা পরিচালনা থেকে তুরিন আফরোজকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। এরপর মঙ্গলবার তুরিন আফরোজকে মামলা পরিচালনা থেকে বিরত থাকার আদেশ দেন এবং তার কাছে থাকা নথিপত্র চেয়ে পাঠান। পাশাপাশি এ ঘটনায় একটি তদন্তও শুরু করা হয়েছে।

বুধবার এসব অভিযোগের একটি কপি পাঠানো হয়েছে আইন মন্ত্রণালয়েও।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here