মালয়েশিয়ার সাধারণ নির্বাচনে চমক দিয়ে বিজয়ী হয়েছে ড. মাহাথির বিন মোহাম্মদের নেতৃত্বাধীন জোট পাকাতান হারাপান। ২২২টি আসনের মধ্যে ১১৫টিই তাদের দখলে। সরকার গঠনের জন্য দরকার ছিল ১১২টি আসনে জয়। আর এর মাধ্যমে ইতিহাস সৃষ্টি করে দেশটির ক্ষমতায় ফিরলেন মাহাথির। ৯২ বছরের বর্ষীয়ান এই রাজনীতিক হতে চলেছেন বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বয়সী প্রধানমন্ত্রী। ১৯৫৭ সালে স্বাধীনতা অর্জনের দীর্ঘ ৬১ বছরে এবারই প্রথম ক্ষমতার পালাবদল হলো মালয়েশিয়ায়।

এর আগে দেশটির নির্বাচন কমিশন আনুষ্ঠানিকভাবে বিরোধী জোট পাকাতান হারাপানকে বিজয়ী ঘোষণা করে। দলটি সরকার গঠনে প্রয়োজন নূন্যতম সংখ্যাগরিষ্ঠতা ১১২টি আসন ছুঁয়ে ফেলার পরই আসে এ ঘোষণা।

নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, আর মাত্র কয়েকটি আসনের ভোট গণনা বাকি। প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের নেতৃত্বাধীন ক্ষমতাসীন জোট বারিসান ন্যাসিওনালের ঝুলিতে এখন পর্যন্ত গেছে ৭৯টি আসন।

১৫ বছর আগে ক্ষমতা ছাড়ার পর মালয়েশিয়ার সপ্তম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন মাহাথির মোহাম্মদ। আজ বৃহস্পতিবারই শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান হবে বলে আশা প্রকাশ করেন এই নেতা। স্থানীয় সময় ভোর ৩টায় দলের বিজয় ঘোষণার সময় সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ আশা প্রকাশ করেন। একইসঙ্গে তিনি আগামী তিন দিন ছুটি ঘোষণা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে মালয়েশিয়ার সাবেক উপপ্রধানমন্ত্রী ও রাজনৈতিক বন্দি আনোয়ার ইব্রাহীমের প্রসঙ্গে তিনি জানান, তার সাধারণ ক্ষমার বিষয়টি নিয়ে কাজ করবেন। তিনি আসছে জুনে মুক্তি পাবেন। ক্ষমা ঘোষণার পর ফের সংসদ সদস্য হওয়ার যোগ্যতা অর্জন করবেন আনোয়ার ইব্রাহিম। তবে তার আগে নির্বাচনের মাধ্যমে তাকে পার্লামেন্টের সদস্য হতে হবে।

এদিকে নাজিব রাজাক এক সময় মাহাথির মোহাম্মদেরই শিষ্য ছিলেন। তবে নাজিব ওয়ান এমডিবি রাষ্ট্রীয় তহবিল কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পড়ার পর ন্যাশনাল ফ্রন্টের গুরুত্বপূর্ণ একটি দল ছেড়ে বিরোধী দলে যোগ দেন মাহাথির। তিনি নাজিবের পদত্যাগ দাবি করেন। এ কেলেঙ্কারিতে জড়ানো ছড়াও দেশে ক্রমাগত জীবিকা নির্বাহের ব্যয় বাড়ার কারণে জনপ্রিয়তা তলানীতে যেতে থাকে নাজিবের।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here