সোমালিয়ার ১১ জনকে বিয়ের অপরাধে শুকরি আব্দুল্লাহি ওয়ারসা নামে এক নারীকে মাটিতে পুঁতে পাথর ছুঁড়ে হত্যা করেছে জঙ্গিগোষ্ঠী আল-শাবাব। শুকরি আব্দুল্লাহির বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি ১১টি বিয়ে করেছেন, কিন্তু কোনো স্বামীর সঙ্গেই তার বিবাহ বিচ্ছেদ হয়নি।

সোমালিয়ার দক্ষিণাঞ্চলের শহর সাব্লালের বাসিন্দারা বলছেন, আল শাবাবের জঙ্গিরা তাকে গলা পর্যন্ত মাটিতে পুঁতে রেখে তারপর পাথর ছুড়ে হত্যা করেছে।

আল শাবাব শরিয়া আইনের কঠোর ব্যাখ্যা দিয়ে থাকে। সোমালিয়ার একটা বড় অঞ্চল নিজেদের দখলে রেখেছে তারা এবং দেশটির সরকারকে উৎখাতে প্রায়ই তারা হামলা চালায়।

মোহাম্মদ আবু উসামা নামে আল শাবাবের একজন গভর্নর রয়টার্সকে বলেছেন, শুকরি আব্দুল্লাহির ৯ স্বামীকে আমাদের শরিয়া আদালতে হাজির করা হয়। তারা প্রত্যেকে শুকরিকে নিজের স্ত্রী বলে দাবি করে।

ইসলামিক আইন অনুযায়ী, একজন নারীর একাধিক স্বামী থাকা অবৈধ, তবে পুরুষদের চারটি পর্যন্ত স্ত্রী থাকার বিধান রয়েছে। স্বামী-স্ত্রী উভয়েরই বিবাহ বিচ্ছেদ করার সুযোগ থাকলেও স্ত্রী বিচ্ছেদ চাইলে তাকে স্বামীর সম্মতি চাইতে হবে। স্বামী সম্মতি না দিলে স্ত্রী আদালতে যেতে পারবেন।

আল শাবাবের প্রচারমাধ্যমে বলা হয়েছে, শুকরিকে যখন আদালতে হাজির করা হয় তখন তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ ছিলেন এবং তিনি দোষী সাব্যস্ত হন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here