ঢাকার আকাশে কখনো রোদ আবার কখনো ঘনঘটা। এ যেনো সূর্য-মেঘের লুকোচুরি খেলা। দিন রাতকে মিলানোই যাচ্ছে না। বেলা ৩টা যেন সন্ধ্যা ৭টা। সঙ্গে থেমে থেমে মৃদু বজ্রের ঝলকানি। কালবৈশাখীর এক বিভৎস রূপ! দুপুর বেলাতেও রাজধানীতে গাড়ি চালাতে হয় হেডলাইট জ্বালিয়ে। সড়কের অটো বাতিগুলোও সন্ধ্যা ভেবে আলো ছড়ায়। বৈশাখের প্রথম দিন থেকেই রাজধানীতে এটি নিত্যদৃশ্য।

শুক্রবার সকাল থেকেই ছিল মেঘের আনাগোনা। বেলা সাড়ে ৩টার দিকেই আকাশ কালো করে রাতে আঁধার নামে রাজধানীতে। ছুটির দিনের ফাঁকা রাস্তা মুহূর্তেই আরও ফাঁকা হয়ে যায়। সন্ধ্যার পর শুরু হয় ঝুম বৃষ্টি। সঙ্গে মকা হাওয়া। কর্মহীন বিসে নাগরিক জীবনের বিনোদনে হঠাৎ ছন্দপতন।

আবহাওয়া অফিসের দেয়া তথ্য মতে, দিনের আকাশে হঠাৎ করেই রাতের আঁধার নামার দৃশ্য বৈশাখের প্রথম দিন থেকে প্রায় প্রতিদিনই চোখে পড়ছে। কালো মেঘের পর ভারী বর্ষণে সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতা। দুর্ভোগ ও ভোগান্তিতে পড়তে হয় নগরবাসীকে। বজ্রপাতে ভয় ও আতঙ্ক। সঙ্গে মৃত্যুর মিছিল। তা ছাড়া এ বছর মে মাস থেকেই প্রচুর বৃষ্টি ঝরছে। এমনটা হলে আগের রেকর্ড ভাঙবে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here