মালয়েশিয়ায় জীবনধারণের ব্যয় বেড়েছে অত্যধিক এবং জিনিসপত্র ও বিভিন্ন সেবার ওপর সরকার নতুন নতুন কর আরোপ করেছে, যা কখনই জনপ্রিয় নয়। তবে সাম্প্রতিক কয়েক বছরে দেশটির রাজনীতিতে সবচেয়ে আলোচিত বিষয় হলো দুর্নীতি। নাজিব রাজাক বিদেশি বিনিয়োগ উৎসাহিত করতে বিশেষ তহবিল গঠন করেছেন। কিন্তু এ তহবিলের সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তারা এটি ব্যবহার করে ব্যক্তিগত স্বার্থসিদ্ধি করছেন।

নাজিব রাজাকের বিরুদ্ধে ৭০ কোটি ডলার পকেটস্থ করার অভিযোগও উঠেছে। তবে সবচেয়ে বড় কথা নাজিব রাজাক এ অভিযোগ বরাবর অস্বীকার করে এসেছেন। কিন্তু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশে তার ও এই তহবিলের বিরুদ্ধে অভিযোগে তদন্ত চলছে, যা বাইরে মালয়েশিয়ার ভাবমূর্তি নষ্ট করেছে। সেখানেই বাজিমাত করেছেন মাহাথির মোহাম্মদ।

বুধবার মালয়েশিয়ার ১৪তম পার্লামেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে মাহাথির নেতৃত্বাধীন পাকাতান হারপান (পিএইচ) জোট ২২২ আসনের মধ্যে ১২২টিতে জয়ী হয়। যদিও সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজন ছিল ১১২ আসন। অন্যদিকে ক্ষমতাসীন নাজিব রাজাক নেতৃত্বাধীন বারিসান ন্যাশনাল জোট আসন পেয়েছে ৭৯টি।

১৯৫৭ সালে স্বাধীনতার পর এই প্রথম দেশটির ক্ষমতা এ জোটের বাইরে গেল। এদিকে বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক বৃহস্পতিবার জানান, তিনি নির্বাচনে জনগণের দেওয়া রায় মেনে নিয়েছেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here