সম্পর্কে তারা মামা-ভাগ্নি; কিন্তু এ সম্পর্কের বাইরেও দুজনের মধ্যে গড়ে ওঠেছিল প্রেমের সম্পর্ক। পরিবারের সদস্যরা সেটা মেনে নিতে রাজি হয়নি। তাই অসম সম্পর্কের শেষ পরিনতি হয় মর্মান্তিক। এক রশিতে ঝুলেই পৃথিবীকে জানিয়েছে বিদায়।

পশ্চিবঙ্গের জলপাইগুড়ির ময়নাগুড়ির সুতলিহাটায় এ চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে। দেবাশীষ রায় নামের এক মামার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে তার ভাগ্নির। জানা জানি হলে পরিবারকে বুঝানোর চেষ্ঠা করে তারা। কিন্তু কোনো ফল না পেয়ে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী ওই নাবালিকাকে নিয়ে পালিয়ে যান দেবাশীষ।

তবে কে জানতো যে, তাদের এই পালিয়ে যাওয়াটা আসলে বাড়ি থেকে না, একেবারেই পৃথিবী থেকে। বাড়ি থেকে পালিয়ে যাওয়ার পর দুদিন ধরে নিখোঁজ ছিল তারা। পরে শনিবার সকালে চা বাগানের মধ্যে একটি নিমগাছে দুজনকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় লোকজন। এক রশিতেই তারা আত্মাহুতি দিয়েছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here