নৌমন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের অপশক্তি, জামায়াত, শিবির, স্বাধীনতাবিরোধী, যুদ্ধাপরাধীদের সন্তানরা যতই মেধাবী হোক, তারা সরকারি চাকরি পাবে না।’

রবিবার (১৩ মে) বাংলাদেশ টিএন্ডটি শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেল ইউনিয়ন বিসিএ কর্তৃক আয়োজিত গুলিস্তান টেলিফোন এক্সচেঞ্জ ভবন চত্বরে জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের অপশক্তি, জামায়াত, শিবির রাজাকার ও যুদ্ধাপরাধীদের সন্তানরা যতই মেধাবী ছাত্র হোক, যারা ষড়যন্ত্র করছে, যারা স্বাধীনতার অপশক্তি, তাদের সন্তানরা সরকারি চাকরি পাবে না। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কোটা সংস্কার নিয়ে যে আন্দোলন আবার শুরু হয়েছে এর পিছনে কোন কুচক্রীমহল জড়িত আছে। ঐ কুচক্রীমহল স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় তারা ষড়যন্ত্র করছে। এখন আবার কোটা সংস্কারের ইস‍্যু নিয়ে ষড়যন্ত্র করছে।’

শাজাহান খান বলেন, ‘যুদ্ধাপরাধীদের, জামায়াত, শিবিরের সন্তানরা সরকারি চাকরি করছে, সেইসব মন্ত্রণালয় থেকে জামায়াত-শিবির ও যুদ্ধাপরাধীদের সন্তানদের চাকুরিচ্যুত করা হোক। সরকারের মন্ত্রণালয় চাকরি করে সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করবে তাদের কাউকেই রাখা হবে না, তাদের চাকুরিচ্যুত করা হবে।’

এ সময় তিনি শ্রমজীবি নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে থাকতে হবে। ষড়যন্ত্র চলছে এই ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রধানমন্ত্রীর হাতকে আরো শক্তিশালী করে আবারো ক্ষমতায় আনতে হবে। এজন্য সকলের কাছে তিনি নৌকা মার্কায় ভোট দেয়ার আহ্বান করেন।’

বাংলাদেশ টিএন্ডটি শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেল ইউনিয়ন বিসিএ প্রেসিডেন্ট এবং ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সহ-সভাপতি মো. শাহনেওয়াজ সভাপতিত্বে এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি সদস্য বেগম মন্নুজান সুফিয়ান এমপি, জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি শুক্কুর মাহমুদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা জাতীয় শ্রমিক লীগের কার্যকরী সভাপতি ফজলুল হক মন্টু, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here