ইন্দোনেশিয়ার সুরাবায়া শহরে পুলিশের সদর দফতরে বোমা হামলার ঘটনায় অন্তত সাতজন নিহত হয়েছে। মাত্র একদিন আগেই সুরাবায়ার তিনটি গির্জায় চালানো আত্মঘাতী হামলার পরই পুলিশ সদর দফতরে এই হামলার ঘটনা ঘটল।

পূর্বাঞ্চলীয় জাভা শহরের পুলিশের মুখপাত্র ফ্রান্স বারুং মাংগেরা জানিয়েছেন, স্থানীয় সময় সকাল ৮টা ৫০ মিনিটে হামলা চালানো হয়। এতে কমপক্ষে সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। তিনি বলেন, সেখানে একটি বিস্ফোরণ ঘটেছে। তবে আসলেই কি ঘটেছে সে বিষয়ে আমরা এখনও নিশ্চিত নই।

সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে একটি মোটরসাইকেল পুলিশ স্টেশনের গাড়ি পার্কিংয়ের জায়গায় এসে থামে। মোটরসাইকেলটি একজন পুরুষ চালাচ্ছিল এবং তার পেছনে একজন নারী ছিল। তারা পুলিশ সদর দফতরের একটি নিরাপত্তা চেকপয়েন্টে বিস্ফোরক থেকে বিস্ফোরণ ঘটায়।

তিনটি গির্জায় আত্মঘাতী হামলা চালানোর একদিন পরেই পূর্বাঞ্চলীয় জাভায় সোমবার এই হামলা চালানো হলো। একই পরিবারের সব সদস্য মিলে সমন্বিতভাবে গির্জাগুলোতে হামলা চালায়। দুই বাচ্চাকে নিয়ে মা একটি গির্জায় হামলা চালায়। আর বাবা এবং তিন ছেলে আরো দু’টি হামলায় অংশ নেয়।

বাবা বিস্ফোরকভর্তি একটি গাড়ি নিয়ে যান পেন্টেকোস্টাল গির্জার কাছে। তারপর হামলা চালানো হয়। এতে পরিবারের তিন সদস্যের মৃত্যু হয়। পরিবারের দুই শিশুকে গুরুতর আহত অবস্থায় সিটি খোদিজাহ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে।

তিনটি গির্জা এবং পুলিশের সদর দফতরে হামলার দায় স্বীকার করেছে জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)। পুলিশের ধারণা গির্জাগুলোতে হামলা চালানো পরিবারটি সম্প্রতি সিরিয়া থেকে ফিরেছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here