পরীক্ষা দিতে হলে প্রবেশের জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন পরীক্ষার্থীরা। কিন্তু এর মধ্যে ধরে ধরে যেসব নারী হাতাসহ জামা পরে এসেছেন তা কেটে দেওয়া হয়। স্কুল কর্তৃপক্ষের এমন কাণ্ডে সবাই বিব্রত। কারণ জানতে চাইলে বলা হয়, নকল আটকাতেই নাকি এ পদ্ধতি।

ভারতের বিহার রাজ্যের মুজাফফরপুর জেলায় ঘটনাটি ঘটেছে বলে জানিয়েছে কলকাতাভিত্তিক একটি সংবাদমাধ্যম।

এ বিষয়ে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ললন প্রসাদ সিং জানিয়েছেন, একটি স্কুলে প্যারা মেডিকেলের ভর্তি পরীক্ষায় এ ঘটনা ঘটে। নকল আটকানোর জন্যই নাকি এ ব্যবস্থা নেয় স্কুল কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, এ ঘটনার পর ওই স্কুলটিকে কালো তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। এর পর ওই স্কুলে আর কোনও পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হবে না।

এদিকে এমন ঘটনার পর ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে ওই কেন্দ্রের পরীক্ষার্থী ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here