কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ‘শহীদ জিয়া তোরণ’ ভেঙে ফেলা হয়েছে। তোরণটি ভেঙে সেখানে প্রায় ছয় কোটি টাকা ব্যয়ে রাস্তা ও ড্রেন নির্মাণ করা হবে বলে জানান পৌর মেয়র ফখরুল আলম আক্কাছ।

বুধবার (১৬ মে) সকাল ১০টায় পৌর মেয়র ফখরুল আলম আক্কাছের নির্দেশে তোরণটি ভেঙে ফেলা হয়।

জানা গেছে, ভৈরব শহরের চন্ডিবের ফেরিঘাট এলাকায় রাস্তার উত্তর পাশে ড্রেন নির্মাণের জন্য তোরণটি উচ্ছেদ করা হয়েছে। এর আগে মঙ্গলবার সকালে পৌর কর্তৃপক্ষ জিয়া তোরণটি ভাঙতে গেলে স্থানীয় বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর প্যানেল চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম তার দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে নির্মাণ শ্রমিকদের বাধা দেন। বিএনপি ক্ষমতায় থাকতে ওই এলাকায় ২০০৬ সালে কিশোরগঞ্জ জেলা পরিষদের অর্থায়নে এই তোরণটি নির্মাণ করা হয়েছিল।

বিএনপি নেতাদের দাবি, জিয়ার নাম মুছে ফেলতেই তোরণটি উচ্ছেদ করেছেন মেয়র।

ভৈরব পৌরসভার মেয়র ফখরুল আলম আক্কাছ বলেন, `ভৈরব শহরের উন্নয়ন, সৌন্দর্য বৃদ্ধি, যানজট কমানো ও রাস্তা প্রশস্ত করতে শহরে বঙ্গবন্ধু তোরণ ও সোহরাওয়ার্দী তোরণও ভেঙে দিয়েছি। হিংসার বশবর্তী হয়ে তোরণটি উচ্ছেদ করিনি।’

এতে এলাকাবাসী জলাবদ্ধতা ও যানজট থেকে মুক্তি পাবে বলে জানান পৌর মেয়র ফখরুল আলম আক্কাছ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here