দিন বদলের সোনালি স্বপ্ন নিয়ে প্রিয় সংসার কিংবা পরিবার ফেলে পারি জমিয়েছিলেন সুদূর সৌদি আরবে। কিন্তু সেই স্বপ্ন অচিরেই ধুলিসাৎ হয়ে যায় যৌনসহ নানা নির্যাতনে। প্রতারিত ওই নারীদের তখন একটাই আকাঙ্ক্ষ, প্রাণটা নিয়ে কোনোরকমে দেশে ফেরা।

এমন ৮৩ নারী শনিবার দেশে ফিরেছেন। গৃহকর্মের কাজ করতে গিয়ে তারা সৌদিতে নির্যাতনের শিকার হন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের প্রবাসীকল্যাণ ডেস্কের কর্মকর্তা কাউসার আহমেদ।

তিনি জানান, সংযুক্ত আরব আমিরাতভিত্তিক এয়ারলাইন্স এয়ার অ্যারাবিয়ার একটি ফাইটে শনিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে নির্যাতিতা এই ৮৩ নারী ঢাকায় পৌঁছেন। দালালের মাধ্যমে টাকা দিয়ে ৫ থেকে ৬ মাস আগে তারা গৃহকর্মী হিসেবে সৌদি আরব গিয়েছিলেন। ওখানে তারা যৌন হয়রানিসহ নানা নির্যাতনের শিকার হন। বাংলাদেশ দূতাবাসের সহায়তায় তাদের দেশে ফিরিয়ে আনা হয়েছে।

এর আগে গত শুক্রবার রাতে সৌদি আরব থেকে দেশে ফিরেন নির্যাতনের শিকার পাঁচ নারী শ্রমিক। আর গত মার্চে ফিরেছেন ২৩ নারী।

গেল চার বছরে সৌদি আরবে নারী গৃহকর্মী যাওয়ার সংখ্যা নাটকীয়ভাবে বেড়ে গেছে। ২০০৮ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত ৭ বছরে ৫ হাজারের কিছু বেশি নারী সৌদি যান। এর পর ২০১৫ সালে যান ২১ হাজার, ২০১৬ সালে ৬৮ হাজার, ২০১৭ সালে ৮৩ হাজার। আর চলতি বছরের প্রথম দুই মাসেই গেছেন ১৬ হাজারের বেশি।

তবে ওই দেশে গিয়েই যৌন হয়রানি বা নির্যাতনের শিকার হতে হয়। তাই অনেক দেশই সৌদি আরবে গৃহকর্মী হিসেবে নারী শ্রমিক পাঠানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। এ কারণেই পুরুষ শ্রমিকদের ব্যাপারে আগ্রহ না থাকলেও বাংলাদেশ থেকে নারী গৃহকর্মী নিচ্ছে সৌদি সরকার।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here