ভারতের বিজেপিশাসিত মধ্য প্রদেশে গরু জবাই নিষিদ্ধ। আর সেই সন্দেহে রিয়াজ খান (৩৮) নামে এক মুসলিম যুবককে পিটিয়ে হত্যা করেছে উন্মত্ত জনতা। ওই ঘটনায় শাকিল (৩৩) নামে অন্য একজন গুরুতর আহত হয়েছেন।

গ্রামবাসী জানায়, গরু জবাইয়ের কথা কয়েকজন অন্য গ্রামবাসীদের জানায়। এরপর উন্মত্ত জনতা ঘটনাস্থলে পৌঁছে রিয়াজ ও শাকিলকে ঘিরে ধরে গণপিটুনি দেয় এবং আধমরা অবস্থায় তাদেরকে ফেলে রেখে যায়।

শুক্রবার ভোর ৩টার দিকে কোনো একজন বিষয়টি জানালে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার জন্য অ্যাম্বুলেন্সকে খবর দেয়। কিন্তু অ্যাম্বুলেন্স না আসায় পুলিশ আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। ততক্ষণে প্রাণ হারান রিয়াজ খান।

আহত শাকিলকে প্রথমে সাতনা এবং পরে জবলপুর মেট্রো হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। তার গোটা শরীরে আঘাতের চিহ্ন থাকায় তাকে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে রাখা হয়েছে।

নিহত রিয়াজ ও আহত শাকিলের পরিবারের পক্ষ থেকে গরু জবাইয়ের অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। কিন্তু পবন সিংয়ের অভিযোগে পুলিশ আক্রান্তদের বিরুদ্ধে গবাদিপশু হত্যা নিরোধক আইনে মামলা দায়ের করেছে।

পুলিশের কাছে অভিযোগকারীদের দাবি, ঘটনাস্থলে শাকিল ও রিয়াজের সঙ্গে অন্য কয়েকজন ব্যক্তি ছিল। তারা গ্রামবাসীদের দেখে পালিয়ে যায়। কিন্তু পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি প্যাকেটে মহিষের মাংস পেয়েছেন।

পুলিশ এ ঘটনায় ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। অভিযুক্ত পবন সিং গৌড়, বিনয় সিং গৌড়, ফুল সিং গৌড় এবং নারায়ণ সিং গৌড়ের বিরুদ্ধে পুলিশ মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু হয়েছে।

মধ্য প্রদেশের সাতনা জেলার আমগড় গ্রামে গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতের ওই ঘটনায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ময়না তদন্ত শেষে রিয়াজের লাশ তার পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here