সুপারনোভায় ধ্বংস হওয়ার পথে নক্ষত্ররা যেভাবে দ্যুতি ছড়ায়, গতকাল রাতে ন্যু ক্যাম্পে ইনিয়েস্তার বিদায় মুহূর্তটা ঠিক তেমনই উজ্জ্বল হয়ে রইল। ফুটবলবিশ্ব দেখল তারা খসার চমক। মাত্র কয়েক সপ্তাহের ব্যবধানে বিশ্ব ফুটবল একে একে বহু তারকাকেই তাদের দীর্ঘদিনের আস্তানা ছেড়ে যেতে দেখেছে। ওয়েঙ্গার থেকে বুফোঁ-তোরেস হয়ে সেই তালিকা দীর্ঘায়িত হল ইনিয়েস্তার বার্সা ত্যাগে।

ওয়েঙ্গার হোক, অথবা বুঁফো, ন্যু ক্যাম্পের চিত্রনাট্যটাই ছিল খানিকটা একই রকম। বিদায় সংবর্ধনায় ওয়েঙ্গারকে যেমন আকুণ্ঠ ভালোবাসায় ভরিয়ে দিয়েছে গানার্স সমর্থকরা, ইনিয়েস্তাও পেলেন একই রকমের বিদায়ী মঞ্চ। আবার ক্লাবকে চ্যাম্পিয়ন করিয়ে বুঁফোর ওল্ড লেডি ছেড়ে যাওয়ার সঙ্গে ইনিয়েস্তার বার্সেলোনা ছাড়ার প্রেক্ষাপটটাও অবিকল এক।

আগেই লিগ চ্যাম্পিয়ন হওয়া জুভেকে চোখের জলে বিদায় জানিয়েছিলেন বুঁফো। শেষবেলায় ইনিয়েস্তারও চোখের জল বাধ মানেনি। তার সঙ্গে কেঁদেছে গোটা ন্যু ক্যাম্প। লা লিগার খেতাব ইতিমধ্যেই ঝুলিতে পোরা বার্সেলোনা প্রিয় তারকাকে বিদায় জানাতে গিয়ে চোখের জলে ভিজেছে।

লিগের ফয়সলা হয়ে গিয়েছে বহু আগেই। লা লিগার সমাপ্তিসূচক ম্যাচটা বার্সা এবং স্প্যানিশ লিগে ইনিয়েস্তার বিদায়ী ম্যাচ হিসাবেই স্মরণীয় হয়ে থাকবে চিরকাল। রিয়াল সোসিয়েদাদের বিরুদ্ধে বার্সেলোনাকে শেষবার নেতৃত্ব দিতে নামা ইনিয়েস্তা ৮২ মিনিটে যখন মাঠ ছাড়েন, স্তব্ধ হয়ে যায় ম্যাচের গতি। সতীর্থরা ছাড়াও একে একে বিপক্ষ ফুটবলার এবং রেফারিও জড়িয়ে ধরে শেষ বারের মাতো ইনিয়েস্তার ন্যু ক্যাম্প ছাড়ার মুহূর্তটাকে আবেগঘন করে তোলেন। ডাগআউটে বসে ছলছল চোখে ম্যাচের বাকি সময়টা কাটিয়ে দেন তিনি।

৫৭ মিনিটে কুটিনহোর একমাত্র গোলে ইনিয়েস্তার বিদায়ী ম্যাচকে জয় দিয়ে স্মরণীয় করে রাখে বার্সা। ম্যাচ শেষ হওয়া মাত্রাই মাঠ জুড়ে নেমে আসে অন্ধকারের নিস্তব্ধতা। পরক্ষণেই নিয়ন আলোয় শুরু হয় বার্সেলোনায় ইনিয়েস্তার কেরিয়ার উদযাপণের বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠান। #MerciWenger ক্যাম্পেনে গানার্সরা যেমন ওয়েঙ্গারকে ক্লাবের ইতিহাসে উজ্জ্বল করে রেখেছিল, ঠিক তেমনই #inifinit8iniesta ছিল ন্যু ক্যাম্পের মন্ত্র। ম্যাচের আগাগোড়া তো বটেই, শেষ বারের মতো স্টেডিয়াম ছেড়ে যাওয়ার আগে পর্যন্ত ইনিয়েস্তা ইনিয়েস্তা ধ্বনিতে মুখরিত ছিল ন্যু ক্যাম্প।

সতীর্থ ও সমর্থকদের ভালোবাসায় ভেসে ইনিয়েস্তা যখন মাইক্রোফোন হাতে তুলে নেন, আবেগে উচ্ছ্বাসে উদ্বেলিত ন্যু ক্যাম্পে তখন ‘পিন ড্রপ সাইলেন্স’। কাঁপা কাঁপা গলায় ইনিয়েস্তা ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ৩১টি ট্রফি এনে দেওয়া ক্লাব, সতীর্থ ও সমর্থদের। পরক্ষণেই বলে ওঠেন, ‘আজকের দিনে আবেগ ধরে রাখা মুশকিল। এখানে এসেছিলাম একজন বালক হিসাবে। ক্লাব ছাড়ছি পরিণত মানুষ হয়ে। বিদায় বার্সা।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here